ভোটার উপস্থিতি কমের ৩টি কারণ জানালেন সিইসি

  • ১-মার্চ-২০১৯ ১২:১৯ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উপ-নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি কমের ৩টি কারণ জানালেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা।

তিনি বলেন, কয়েকটি কারণে ভোটারের উপস্থিতি কম ছিল বলে মনে করছি। ঢাকা সিটির নির্বাচনের মেয়াদ খুব কম, এটা প্রথম কারণ ভোটার কম উপস্থিত হওয়ার। প্রধান রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করেনি, এটা দ্বিতীয় কারণ। আবহাওয়া খারাপ ছিল, তৃতীয় কারণ হলো এটা। এসব কারণে ভোটার উপস্থিত হয়নি।’ 

শুক্রবার (০১ মার্চ) সকালে জাতীয় ভোটার দিবসের র‍্যালিতে অংশ নিয়ে সিইসি এসব কথা বলেন।

ঢাকা সিটি নির্বাচন নিয়ে কমিশন সন্তুষ্ট কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, হ্যাঁ, সন্তুষ্ট। তবে বৃহস্পতিবারের নির্বাচনে ভোটারদের যে উপস্থিতি, তা এ দেশের ভোটের প্রকৃত চিত্র নয়। তার দাবি, এ দেশের মানুষ সারি বেঁধে ভোট দিতে যায়।

মানুষের ভোটাধিকারের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি বলবো সবার ভোটাধিকার পুরোপুরি ফিরে এসেছে। আমরা সবার ভোট দেওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করেছি।

দিবস পালন বিষয়ে সিইসি বলেন, ভোটার হব, ভোট দেব— প্রতিপাদ্যে প্রথমবারের দিবসটি পালিত হচ্ছে। ভোটারদের উৎসাহিত করাই এই দিবসের প্রধান উদ্দেশ্য। ভোটার নিবন্ধন একটি প্রক্রিয়া। তাই আলাদা দিবসের মাধ্যমে আমরা সেটি শুরু করতে চাইছি।

দেশে প্রথমবারের মতো ১ মার্চ পালন করা হচ্ছে জাতীয় ভোটার দিবস। ‘ভোটার হব ভোট দেব’ স্লোগানে সারাদেশে দিবসটি পালন করা হচ্ছে।

জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজা থেকে র‍্যালিটি শুরু হয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) গিয়ে শেষ হয়।  এতে কমিশনার মাহবুব তালুকদারসহ নির্বাচন কমিশনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

দিবসটি উপলক্ষে বিকেল ৪টায় নির্বাচন ভবনের অডিটরিয়ামে কেন্দ্রীয় আলোচনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রাষ্ট্রপতি। আর বিশেষ অতিথি থাকবেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

উল্লেখ্য, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উপ-নির্বাচনে ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৫৯৯ জন ভোটারের মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ৯ লাখ ৪২ হাজার ৫৩৯ জন ভোটা। সে হিসাবে ভোট পড়েছে ৩১.৫ শতাংশ। 

Ads
Ads