বিশ্বব্যাপি বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ

  • ১৩-ফেব্রুয়ারী-২০১৯ ০৮:৪২ পূর্বাহ্ণ
Ads

ইজতেমা নিয়ে বিদেশে পাঠানো চিঠিতে ১২০ভুল

:: নিজস্ব প্রতিনিধি ::

আসন্ন বিশ্ব ইজতেমায় সারা দুনিয়ার মুসলমানদের কাছে পাঠানো চিঠিতে ১২০টি ভুল ধরা পড়েছে। পৃথিবীর ২০০টি দেশে পাঠানো এই চিঠি বাংলাদেশের ভাবমূর্তিকে চরমভাবে বিনিষ্ট করেছে বলে মন্তব্য করছেন সচেতন মহল। আগামী ১৫,১৬,১৭,১৮ জানুয়ারী সরকারী সিদ্ধান্তের আলোকে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে টঙ্গীর তুরাগ তীরে। প্রতি বছরের বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে হাজার হাজার বিদেশী মুসল্লী বাংলাদেশে আসেন। তাদের আমন্ত্রণ জানাতে বাংলাদেশে তাবলীগের দুপক্ষ থেকেই সারা বিশ্বের সকল দেশের মুসলিমদের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে। একটি চিঠি পাঠিয়েছেন মাওলানা জুবায়ের। অপরটি পাঠিয়েছেন সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম।

গত ২৫জানুয়ারী তারিখে মাদরাসা উলুমে দ্বীনীয়া মালওয়ালী মসজিদ কাকরাইল এর প্যাডে মাওলানা জুবায়ের স্বাক্ষরিত ইংরেজিতে লেখা এই চিঠিতে ১২০টি ভুল ধরা পড়েছে। এই প্রথম এমন চিঠি দেখে খোদ বিদেশি মুসল্লীরা বিষ্মিত। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তাবলীগে ইংরেজী শিক্ষিত ডক্টর প্রফেসরসহ উচ্চশিক্ষিত লোকজনের অভাব নেই। যুগ যুগ ধরে তারাই বিদেশী তাশকিলের দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন দক্ষতা ও সুনামের সাথে। তাবলীগের চলমান দ্বন্দে মাওলানা জুবায়েরের সাথে কওমী মাদরাসার ছাত্র শিক্ষকরা মিলে কাজ করলেও তাবলীগের মূলধারার সাথে রয়ে গেছেন উচ্চ শিক্ষত জেনারেল লাইনের লোকজন। তাই কওমী মাদরাসার হুজুরদের অদক্ষ হাতে লেখা ইংরেজি চিঠিতে এমন ভুল ফুটে উঠেছে বলে মন্তব্য করছেন অনেকেই।

তবে অনেকেই বলছেন, এটি বাংলাদেশের জন্য চরম লজ্জাজনক। এই চিঠির সাথে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি, সুনাম, সুখ্যাতির সম্পর্ক। এমন ভুলে ভরা চিঠি কিভাবে একটি শিক্ষিত জাতির প্রতিনিধিত্ব করতে পারে গোটা পৃথিবীতে? দেশ-বিদেশে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে চলছে তুমুল সমালোচনা।

এ বিষয়ে মূলধারা তাবলীগের তাশকিলের জিম্মাদার রেজা আরিফ বলেন, আমরা এমন চিঠি দেখে বিষ্মিত। পৃথিবীর নানান দেশ থেকে মেহমানরা এমন চিঠি পেয়ে আমাদের ফোন করে লজ্জা দিচ্ছেন। এটি একটি দেশের জন্য লজ্জাজনক বিষয়। চিঠিটি সারা দুনিয়ায় বাংলাদেশের মূখকে ছোট করে দিয়েছে। চিঠি যারা পাঠিয়েছেন তাদের কাছে উচ্চ শিক্ষিত লোক না থাকলেও তো সমস্যা হওয়ার কিছু ছিল না। তারা যেকোন শিক্ষিত ব্যক্তি দ্বারা শুদ্ধ করে লিখিয়ে নিলেই পারতেন। বিশ্ব ইজতেমার সাথে সরকার সংশ্লিষ্ট। এটি বাংলাদেশ সরকারের জন্যও একটি বিব্রতকর চিঠি।

এদিকে গতকাল খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাংলাদেশ সরকার ভিসা সহজ করে দিলেও এখন পর্যন্ত বিদেশি মেহমানদের উপস্থিতি তেমন নেই। প্রচুর বিদেশি মেহমান ভিসা নিলেও তারা শেষ পর্যন্ত তাবলীগের বিশ্ব আমির মাওলানা সাদ কান্ধালভী না আসলে শেষ পর্যন্ত ভিসা বাতিল করতে পারেন বলে জানা যায়। তখন ৬০ভাগ বিদেশি এ বছর আসবেন না বলে আশঙ্কা করা যাচ্ছে। কারন, তারা প্রতি বছর মাওলানা সাদ কান্ধলভীর কাছ থেকে তাদের দেশের জোড় ও ইজতেমার তারিখ ফায়সালা করান। সারা দুনিয়ার সকল দেশের তাবলীগের যাবতীয় সমস্যার সমাধান করা হয় বাংলাদেশের বিশ্ব ইজতেমায়। তিনি না এলে তারা এসব কাজের জন্য দিল্লীতে চলে যাবেন। তবে বাংলাদেশে ভিসা সহজে পাওয়ায় তারা এদেশে আসতেই বেশি সাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। সব কিছু মিলিয়ে বাংলাদেশের বিশ্ব ইজতেমায় বিদেশি মেহমানদের আসা নিয়ে এখনো কিছু সংশয় কাটছে না।

Ads
Ads