ভুল তথ্য দেওয়ায় এনটিআরসিএর জিডি

  • ১৩-ফেব্রুয়ারী-২০১৯ ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ণ
Ads

ফেসবুকে এনটিআরসিএর নামে বিভিন্ন ভুয়া ও ভুল তথ্য দিয়ে মিথ্যাচার করছে এক শ্রেণির প্রতারক চক্র। এধরণের মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া শুরু করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। ইতিমধ্যে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।

এ বিষয়ে এনটিআরসিএর একজন কর্মকর্তা জানান, এনটিআরসিএর কার্যক্রম পুজি করে এক শ্রেণির প্রতারক চক্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিভ্রান্তিমূলক বার্তা ছড়াচ্ছেন। সম্প্রতি এনটিআরসিএ তথ্য ও সেবা নামে এমন একটি ফেসবুক পেইজ ও গ্রুপ খোলা হয়েছে, যা দেখে এনটিআরসিএর দাপ্তরিক পেইজ মনে হয়। কিন্তু এটি এনটিআরসিএর নয়। এরকম গ্রুপ বা পেইজের তথ্যের সত্যতা নেই। এসব পেইজ বা গ্রুপ থেকে বিভ্রান্তি ও উসকানিমূলক তথ্য প্রচার করে এনটিআরসিএ ও সরকারে ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, NTRCA (এনটিআরসিএ) নিবন্ধিত শিক্ষক অধিকার আদায় কমিটি, NTRCA তথ্য অনুসন্ধান এবং বাংলাদেশ বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধিত নিয়োগ বঞ্চিত জাতীয় ঐক্য পরিষদ নামের ফেসবুক গ্রুপ খুলে সরকার, প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও এনটিআরসিএর সাথে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছেন ও আপত্তিকর পোস্ট দিচ্ছেন। এসব ফেসবুক পোস্টের ভাষা অত্যন্ত ঔদ্ধত্য, আক্রমনাত্মক এবং আইন পরিপন্থী। এ কর্মকর্তা আরো বলেন, এ ধরণের পোস্টে ব্যবহৃত ভাষা আপত্তিকর এবং এগুলোতে এতটাই ভুল তথ্য দেয়া হয় যা আদালতের নির্দেশের সাথে সাংঘর্ষিক।

তিনি আরও জানান, এসব অসাধু ব্যক্তিরা বিভিন্ন ভুল ও ভুয়া তথ্য ছড়িয়ে নিরীহ নিবন্ধিতদের কাছ থেকে সরকারের বিরুদ্ধে অযৌক্তিক মামলা করার নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। নিরীহ নিবন্ধিতরাও চাকরি পাওয়ার আশায় টাকা দিচ্ছেন তাদের। এভাবে কোটি কোটি টাকা আদায় প্রতারণা ও দণ্ডনীয় অপরাধ।

এসব মিথ্যাচারীদের বিষয়ে ইতিমধ্যে ব্যবস্থা নেয়া শুরু হয়েছে উল্লেখ করে এ কর্মকর্তা বলেন, এনটিআরসিএ আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছে। অভিযোগে জড়িত সন্দেহভাজনদের সুস্পষ্ট তথ্য তাদের দেয়া হয়েছে। দোষীদের শিগগিরি খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো।

Ads
Ads