মেজর জেনারেল পদে পদোন্নতি পেলেন সাবেক আইজি প্রিজন ইফতেখার উদ্দিন

  • ১২-জানুয়ারী-২০১৯ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বিগ্রেডিয়ার জেনারেল থেকে মেজর জেনারেল পদে পদোন্নতি পেলেন সদ্য সাবেক কারা মহাপরিদর্শক সৈয়দ মোহাম্মদ ইফতেখার উদ্দিন। 

মঙ্গলবার (৮ জানুয়ারী) বেলা দেড় টায় সেনা সদর দপ্তরে তাঁকে মেজর জেনারেল ব্যাজ পরিয়ে দেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর ইউনিয়নের শিংরাউলী গ্রামে ১৯৬০ সালে জন্ম নেয়া সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন ১৯৮৬ সালের ২৫ অক্টোবর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আর্মি মেডিক্যাল কোর-এ যোগদান করেন। কার্যকালে তিনি সেনাবাহিনী ও বিমান বাহিনীর সদর দপ্তর এবং ডিভিশন সদর দপ্তরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি আর্মি মেডিক্যাল কোর ট্রেনিং সেন্টার এর প্রধান প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০১২ সালের ৪ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৩ সালের ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত পরিচালক (ভান্ডার ও সরবরাহ) হিসেবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, কেন্দ্রীয় ঔষাধাগার, তেজগাঁও, ঢাকায় কর্মরত ছিলেন। ১৯৯৪ সালে তিনি “মৌলিক প্যারা প্রশিক্ষণ” গ্রহণ করে আকাশ হতে প্যারাশুটের মাধ্যমে জাম্প এ অংশ গ্রহণ করে কৃতিত্ব লাভ করেন।  ২০০০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ‘হসপিটাল ম্যানেজমেন্ট’ এ স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা মিশনে তিনি রুয়ান্ডা, কুয়েত ও দক্ষিণ সুদানে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও প্রশিক্ষণে তিনি কানাডা, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, কেনিয়া, সৌদি আরব, উগান্ডা ও মালয়েশিয়া গমন করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক পুত্র ও এক কন্যার জনক। 

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক হিসেবে ২০০৯ সালের ১২ আগস্ট থেকে ২০১১ সালের ৩১ জানুয়ারী পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। এ সময়ে তিনি বাংলাদেশ কারা বিভাগের 'কৌশলগত পরিকল্পনা' প্রণয়নের মতো গুরুত্বপূর্ণ কাজে সংশ্লিষ্ট কমিটির প্রধান হিসেবে মূল্যবান অবদান রাখেন।

তিনি নিউজিল্যান্ড, যুক্তরাজ্য ও মালয়শিয়ার বিভিন্ন কারাগার পরিদর্শন করেন। তিনি মালয়েশিয়াতে অনুষ্ঠিত 'কারা ব্যবস্থাপকদের ২য় এশিয়া প্যাসিফিক সেমিনারে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন এবং সেখানে 'কারাগারে বন্দি আধিক্যের প্রভাব' শীর্ষক প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন। ২০১৩ সালের ১৮ ডিসেম্বর থেকে ২০১৮ সালের ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত কারা মহাপরিদর্শক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার আমলে বাংলাদেশের কারাগারে নতুন দিগন্তের সূচনা হয়। স্থানীয় ভাবে তিনি একজন সৎ ও ন্যায়পরায়ন ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত।

Ads
Ads