ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কর্মীদের জন্য নতুন ওয়েজবোর্ড হবে: তথ্যমন্ত্রী

  • ৩১-Dec-২০১৮ ১২:০০ pm
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কর্মীদের জন্য নতুন ওয়েজবোর্ড হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

মঙ্গলবার (০১ জানুয়ারি) সচিবালয়ে গণমাধ্যম কেন্দ্রে ‘বিএসআরএফ সংলাপ’ অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তথ্যমন্ত্রী। বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) এ সংলাপের আয়োজন করেছে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর নতুন বছরের প্রথম দিন সাংবাদিকদের সঙ্গে সংলাপে আসেন মন্ত্রী। জাসদ সভাপতি তথ্যমন্ত্রী ইনুও কুষ্টিয়া-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। 

সাংবাদিকদের প্রশ্নে তথ্যমন্ত্রী বলেন, যে ওয়েজবোর্ড (নবম) গঠন করেছিলাম তাদের যে রিপোর্ট এসেছে সেটা মন্ত্রিসভায় গেছে। মন্ত্রীদের নিয়ে যে উপ-কমিটি হয়েছে ভোটের আগে সেই কমিটির একটি সভাও হয়েছে। নতুন মন্ত্রিসভা সেই। রিপোর্টে ইলেকট্রনিক মিডিয়ার জন্য ওয়েজবোর্ড দিতে হবে বলে নির্দেশনা আছে। সুতরাং ওটা দেওয়ার জন্য প্রাথমিক প্রশাসনিক কাজটা সম্পন্ন হলে নতুন সরকার এবং তথ্য মন্ত্রণালয় এটা সম্পন্ন করবে। সুতরাং নতুন বছরে আমি আশা করছি ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কর্মীদের জন্য নতুন ওয়েজবোর্ড হবে।

২০১৫ সালে সরকারি কর্মচারীদের নতুন বেতন কাঠামো ঘোষণার পর নিজেদের নতুন বেতন কাঠামোর জন্য আন্দোলন কর আসছেন সাংবাদিকরা। সাংবাদিকদের দাবির প্রেক্ষিতে গত জানুয়ারিতে নবম ওয়েজবোর্ড গঠন করে তথ্য মন্ত্রণালয়।

গত ৪ নভেম্বর সাংবাদিকদের জন্য নবম ওয়েজবোর্ডের রোয়েদাদ এর সুপারিশ তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর কাছে হস্তান্তর করেন নবম ওয়েজবোর্ডের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. নিজামুল হক।

সংবাদকর্মীদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির জন্য গত বছরের ৩ ডিসেম্বর ‘নবম সংবাদপত্র মজুরী বোর্ড, ২০১৮’ এর সুপারিশ পর্যালোচনায় পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে দেয় মন্ত্রিসভা।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রীকে আহ্বায়ক করে এই কমিটিতে রয়েছেন- শিল্প, স্বরাষ্ট্র, তথ্য এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রী। তথ্য মন্ত্রণালয় এই কমিটির সাচিবিক দায়িত্ব পালন করবে।

নতুন বছরের ২৮ জানুয়ারির মধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে। এজন্য ১৮ জানুয়ারির মধ্যে কাজ শেষ করে সুপারিশ দিতে হবে।

রোয়েদাদ সুপারিশে সাংবাদিক-কর্মচারীদের পাঁচটি শ্রেণিতে ১৫টি গ্রেড রয়েছে। প্রথম তিনটি গ্রেডে মূল বেতনের ৮০ শতাংশ এবং নিচের তিন গ্রেডে ৮৫ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির সুপারিশ করা হয়েছে।

এছাড়া ৬০-৭০ শতাংশ বাড়ি ভাড়া বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়। আর মূল বেতনের ২০ শতাংশ হারে বৈশাখী ভাতা যুক্ত করার সুপারিশ করা হয়েছে।

ওয়েজবোর্ড সাংবাদিকদের বেতন কাঠামো চূড়ান্ত করে থাকে। ২০১২ সালে সাংবাদিকদের জন্য অষ্টম ওয়েজ বোর্ড গঠন করা হয়েছিল। পরের বছর এই বোর্ড নতুন বেতন কাঠামো চূড়ান্ত করেছিল।

সংলাপে বিএসআরফের সভাপতি শ্যামল সরকার ও সাধারণ সম্পাদক মহসীন আশরাফ উপস্থিত ছিলেন।

/ই

Ads