ইনিংস ব্যবধানে হারলো ভারত!

  • ১৩-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

কাজটা কঠিন ছিল সন্দেহ নেই৷ তবু চতুর্থ দিনের পিচে সতেজতা ছিল না বলেই লড়াইটা ভারত দীর্ঘায়িত করবে বলেই মনে হয়েছিল৷ তবে টিম ইন্ডিয়ার আত্মসমর্পণ করার চেনা ছবিটা ঘুরে ফিরে আসায় ঐতিহ্যের লর্ডসে লজ্জাজনক এক অধ্যায়ের সাক্ষী থাকল ভারতীয় ক্রিকেট৷

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসের নিরিখে ২৮৯ রানের বিশাল লিড চাপিয়ে দিয়েছিল টিম ইন্ডিয়ার ঘাড়ে৷ প্রথম দফায় ১০৭ রানে অলআউট হয়ে যাওয়া কোহলিরা ইনিংস হার এড়াতে পারে কি না, সেটাই ছিল দেখার৷ ব্রিটিশ ব্যাটসম্যানরা যেভাবে অনায়াসে ভারতীয় বোলারদের মোকাবিলা করে বড় রানের ইনিংল গড়ে তোলে, তাতে কোহলিদের কাছ থেকেও অবিস্মরণীয় কিছু দেখার আশায় বুক বাঁধছিল ভারতীয় ক্রিকেটমহল৷ তবে দিনের শেষে চূড়ান্ত হতাশ হতে হল ভারতীয় সমর্থকদের৷

প্রথম ইনিংসে ৩৫.২ ওভার স্থায়ী হয়েছিল বিরাটদের ইনিংস৷ দ্বিতীয় দফায় ভারত ৪৭ ওভারে অলআউট হয়ে যায় ১৩০ রানে৷ ইংল্যান্ড এক ইনিংস ও ১৫৯ রানে লর্ডস টেস্টে জয় তুলে নেয়৷ একই সঙ্গে তারা পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায়৷ প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও মুরলি বিজয় শূন্য রানে আউট হন৷ তিনি অ্যান্ডারসনের টেস্ট কেরিয়ারের ৫৫০ তম শিকার৷ বিজয়কে ফিরিয়েই লর্ডসে একশো টেস্ট উইকেটের মাইলস্টোন ছুঁয়ে ফেলেন অ্যান্ডারসন৷

অপর ওপেনার লোকেশ রাহুলও অ্যান্ডারসনের বলেই আউট হন৷ ফিরে যাওয়ার আগে লোকেশ ১৬ বলে ১০ রান করেন৷ জিমি ভারতের মাথা ছেঁটে ফেলার পর টপ-মিডল অর্ডারে ধস নামান স্টুয়ার্ট ব্রড৷ তিনি পর পর ফিরিয়ে দেন রাহানে, পূজারা, কোহলি ও দীনেশ কার্তিককে৷ রাহানে ৩৩ বলে ১৩ রান করে আউট হন৷ পূজারা ৮৭ বলে ১৭ রান করে ক্রিজ ছাড়েন৷ সাজঘরে ফেরার আগে কোহলির সংগ্রহ ২৯ বলে ১৭ রান৷ কার্তিক যথারীতি ব্যর্থতার ধারা বজায় রেখে শূন্য রানে প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটা লাগান৷

হার্দিক পান্ডিয়া ২৬ রান করে ক্রিস ওকসের শিকার হন৷ কুলদীপ ও শামিকে খাতা খোলার সুযোগ দেননি অ্যান্ডারসন৷ ইশান্তকে ২ রানে ফিরিয়ে ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসে দাঁড়ি টেনে দেন ওকস৷ অশ্বিন অপরাজিত থাকেন ব্যক্তিগত ৩৩ রানে৷ ইংল্যান্ডের হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে চারটি করে উইকেট নেন অ্যান্ডারসন ও ব্রড৷ দুই ইনিংস মিলিয়ে ন’টি উইকেট নেওয়া জিমির টেস্ট উইকেট সংখ্যা দাঁড়াল ৫৫৩৷ যার মধ্য ১০৩টি তিনি লর্ডসেই নিয়েছেন৷ ব্রড ৪২৪টি উইকেট নিয়ে ঢুকে পড়লেন সর্বোচ্চ টেস্ট উইকেট শিকারিদের তালিকার প্রথম দশে৷ ব্যাট হাতে ১৩৭ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলা ওকস দু’ইনিংস মিলিয়ে চারটি উইকেট নিয়েছেন৷ স্বাভাবিকভাবেই তিনি ম্যাচের সেরার পুরস্কার পকেটে পোরেন৷

২০১৪’র ইংল্যান্ড সফরে এই লর্ডসেই ভারত ৯৫ রানের স্মরণীয় জয় তুলে নিয়েছিল৷ ইশান্ত শর্মা ৭৪ রানে ৭ উইকেট নিয়ে টিম ইন্ডিয়াকে জয় এনে দিয়েছিলেন৷ এবার ছবিটা বদলে গেল পুরোপুরি৷ সিরিজে ভারতের জন্য আরও লজ্জা অপেক্ষা করে আছে কি না, তা জানতে আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে৷

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ভারত: ১০৭ ও ১৩০
ইংল্যান্ড: ৩৯৬/৭ ডিক্লেয়ার
(ইংল্যান্ড এক ইনিংস ও ১৫৯ রানে জয়ী)

Ads
Ads