‘খামোশ বললে চলবে না, আমরা সবাই থামবো না’

  • ১৬-Dec-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

নিজস্ব প্রতিবেদক
ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন এখন জাতীয় খামোশে পরিণত হয়েছেন। সংবাদকর্মীদের বিরুদ্ধে খামোশ উচ্চারণের পরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠছে। এ ঝড় শেষ পর্যন্ত রাজপথেও ছড়িয়েছে। 

রোববার মহান বিজয় দিবসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় টিএসসির সামনে একদন কলেজপড়ুয়া তরুণ জড়ো হয়ে ড. কামাল হোসেনের এমন দৃষ্টতার বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে। কলেজ পড়ুয়া ছাত্রদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর নির্দেশে সেখানে যোগ দেয় বাংলাদেশ ছাত্রলীগও। 

ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তানজিল ভূঁইয়া তানভীর, সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য তৌফিকুল হাসান সাগরসহ অনেকেই যোগ দেন। তারা স্লোগানে স্লোগানে ড. কামালের এমন হীন আচরণের প্রতিবাদ জানান। ‘খামোশ বললে চলবে না, আমরা সবাই থামবো না’- এমন স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয়ে উঠে টিএসসি এলাকা। 

এ প্রসঙ্গে ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তানজিল ভূঁইয়া তানভীর বলেন, ড. কামাল হোসেন ষড়যন্ত্রকারীদের সঙ্গে ঐক্য গড়ে তুলেছেন। ধানের শীষের প্রতীকে জামায়াতের লোকজনদের মনোনয়ন দিয়েছেন। এ বিষয়ে সংবাদকর্মীরা যখন তার কাছে প্রশ্ন করেন তখনই নিজের জাত চিনিয়ে সবাইকে খামোশ করে দিতে চেয়েছেন। 

ছাত্রলীগের সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য তৌফিকুল হাসান সাগর বলেন, তরুণরা ড. কামাল হোসেনের এমন হীন কাজের জবাব দিতে রাজপথে নেমেছে। ছাত্রলীগের সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ভাইয়ের নির্দেশে আমরা সেখানে যোগ দিয়েছি। আমরা ড. কামাল হোসেনের এমন অসহিষ্ণু আচরণের জন্য বিচার চাচ্ছি। কারণ দেশরত্ন শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা ব্যাহত করতেই কাজ করছেন ড. কামাল হোসেনরা। তাদের প্রতিহত করে দাঁতভাঙা জবাব দিবে ছাত্রলীগ। 

Ads
Ads