আগের মতোই চলবে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা

  • ৭-Oct-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে ভর্তি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসা আগে যেভাবে চলছিল সেভাবেই চলবে।

রবিবার (০৭ অক্টোবর) দুপুর দেড়টার দিকে বিএসএমএমইউ’তে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মেডিকেল বোর্ডের সদস্যদের বরাত দিয়ে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আজকে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা বোর্ডের ৫ জন সদস্য সাড়ে ১১টার দিকে খালেদা জিয়ার কক্ষে গিয়েছিলেন। এসময় তারা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার সমস্ত কাগজপত্র দেখেছেন। উনারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে, উনারা পুনরায় না বসা পর্যন্ত চিকিৎসা আগে যেভাবে চলছিল সেভাবেই চলবে। সুবিধাজনক সময়ে তার পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হবে। আগামীকাল উনারা তাকে দেখবেন। আজকে উনারা শুধু কাগজপত্র দেখেছেন।

মেডিক্যাল বোর্ড পুনরায় গঠন করা হয়েছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ডাক্তার সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জি বরিশাল গেছেন। তাই তার পরিবর্তে সহযোগী অধ্যাপক ডা. তাসনিয়া পারভীনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

খালেদা জিয়ার ৩ আইনজীবী বিএসএমএমইউ এর পরিচালকের সঙ্গে দেখা করেছিলেন। তারা দেখা করে কী বলেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আইনজীবীরা আদালতের রায় অনুযায়ী খালেদা জিয়ার চিকিৎসার আবেদন জানিয়েছেন। আমরা আদালতের রায় অনুযায়ী চিকিৎসা করছি।

মেডিক্যাল বোর্ড বদল করার ব্যাপারে তিনি বলেন, কোর্ট যে রায় দিয়েছেন সেখানে চার নম্বর প্যারায় স্পষ্ট উল্লেখ করা আছে যে অধ্যাপক এম এ জলিল চৌধুরী ও সহযোগী অধ্যাপক বদরুন্নেসা আহমেদ ছাড়া বাকি তিনজন যেন ড্যাব বা স্বাচিপের কার্যনির্বাহী সদস্য না হন। বোর্ডে যে কয়েকজন আছেন তারা কেউই ড্যাব বা স্বাচিপের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নন।

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে যদি কোনও গাইনোকোলজিস্ট অথবা ফিজিওথেরাপির কোনও চিকিৎসক চাওয়া হয় তবে তা দেওয়া হবে।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা এখন কেমন জানতে চাইলে তিনি বলেন, গতকাল উনি আসার সময় শারীরিক অবস্থা যেমন ছিল আজকেও তেমনই রয়েছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছর কারাদণ্ড পেয়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে বন্দি রয়েছেন খালেদা। এর মধ্যে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলাসহ আরও বেশ ক’টি মামলায় তার বিচারকার্য চলছে। খালেদা জিয়া অসুস্থ দাবি করে বারবার বিএনপির পক্ষ থেকে তার বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা দাবি করা হচ্ছে।

খালেদার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য একটি বিশেষ বোর্ড গঠন করার নির্দেশনাসহ তার চিকিৎসা সেবা সংক্রান্ত যাবতীয় নথিপত্র দাখিলের নির্দেশনা চেয়ে গত ৯ সেপ্টেম্বর একটি রিট করা হয়।  এরমধ্যে আবার গত ১৫ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে গিয়ে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে।

পরদিন ১৬ সেপ্টেম্বর সে স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। যেখানে স্বাস্থ্যগত পরিস্থিতি বিবেচনায় খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেওয়ার মত দেয় মেডিকেল বোর্ড। তবে যে হাসপাতালে সব ধরনের চিকিৎসা সুবিধা রয়েছে সে হাসপাতালের কথা সুপারিশ করা হয়। সে বিবেচনায় বিএসএমএমইউ হাসপাতালের কথা উল্লেখ করা হয় প্রতিবেদনে।

/ই

Ads
Ads