গভীর রাতে কেকোর স্ত্রী সঙ্গে মির্জা ফখরুল

  • ১৯-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

ভোরের পাতা ডেস্ক
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে দুই ঘণ্টা বৈঠক করলেন প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী সৈয়দা শর্মিলা রহমান। গভীর রাতে দুজন এ বৈঠক করেছেন। বেগম জিয়া এবং তারেক জিয়ার নির্দেশনা শুনিয়ে দিলেন। জানালেন করণীয়। গতরাতে গুলশানে বেগম জিয়ার বাসভবনে ফখরুলকে ডেকে পাঠান সিঁথি। একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে, শর্মিলা বিএনপির শীর্ষ দুই নেতার বরাত দিয়ে মহাসচিবকে জানিয়েদিয়েছেন, অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী বা ড: কামাল হোসেন কারো নেতৃত্বেই বিএনপি যাবে না। বিএনপি আগামী নির্বাচন ২০ দলগত ভাবে করবে। বিএনপির সংগে যদি কেউ আসতে চায়, তবে তাকে নির্বাচনী ঐক্যে নেয়ার ক্ষেত্রে বিবেচনা করা যেতে পারে। উল্লেখ্য সিঁথি বেগম জিয়া এবং তারেক জিয়ার পক্ষ থেকে মির্জা ফখরুলকে ৭ দফা নির্দেশনা দিয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার রাতে লন্ডন থেকে ঢাকায় আসেন প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী। শনিবার তিনি দেখা করেন শাশুড়ী বেগম জিয়ার সংগে। তাদের একঘন্টারও বেশী সময় কথা হয়। সূত্র মতে, সিঁথি তারেক জিয়ার বার্তা বেগম জিয়ার কাছে পৌছে দেন। বেগম জিয়া তারেক জিয়ার অধিকাংশ সিদ্ধান্তের ব্যাপারেই একমত হন। বিএনপি চেয়ারপারসন এই সিদ্ধান্তগুলো বিএনপি মহাসচিবকে জানিয়ে দিতে বলেন। যে অনুযায়ী গতরাতে মির্জা ফখরুলকে ৭ দফা নির্দেশনা জানিয়ে দেয়া হয়। বিভিন্ন সূত্র থেকে পাওয়া খবরে জানা গেছে ৭ দফা নির্দেশনা-
 
১. অক্টোবর থেকে বিএনপিকে নির্বাচনী মাঠে নামতে হবে।

২. বিএনপিকে বেশী করে বলতে হবে, বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না।

৩. বিএনপির মনোনয়ন এবং জোটের আসন বন্টন চুড়ান্ত করবে তারেক জিয়া।

৪. বিএনপি কারো নেতৃত্বের কোন জোটে যাবে না। তবে অভিন্ন প্রশ্নে যুগপৎ আন্দোলন হতে পারে।
সে আন্দোলনের ইস্যুতে বেগম জিয়ার মুক্তি প্রসংগটি থাকতে হবে।
 
৫. নির্বাচনী ইশতেহার চুড়ান্ত করবেন তারেক জিয়া।
 
৬. ২০ দলীয় জোটকে অক্ষুন্ন রাখতে হবে।
 
৭. অবিলম্বে সাম্প্রতিক শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে গ্রেপ্তারকৃতদের পাশে দাড়াতে হবে।
 
এই ৭ নির্দেশনা নিয়ে আজই বিএনপি মহাসচিব দলের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে বসবেন বলে জানা গেছে।

Ads
Ads