চবিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে ছাত্রলীগের হামলা

  • ২৪-Jul-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে হামলা করে ছাত্রলীগ। কোটা সংস্কার নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাসের জেরে দুই শিক্ষককে ক্যাম্পাসে অবাঞ্চিত ঘোষণার প্রতিবাদে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে বৃহস্পতিবার মানববন্ধন করতে গেলে এই হামলা চালানো হয়। এতে ৫ শিক্ষার্থী আহত হয়।

 

মানববন্ধনের ব্যানার কেড়ে নেয়ার পাশাপাশি ছাত্রলীগ কর্মীরা উপস্থিত কয়েকজন শিক্ষককেও গালিগালাজ করে। সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মাইদুল ইসলাম এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আল রাজী কোটা সংস্কার নিয়ে শিক্ষার্থীদের দাবির প্রতি সংহতি জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। এর জেরে দুই শিক্ষকের বিচার দাবি করে ছাত্রলীগ।

একইসঙ্গে তাদের ক্যাম্পাসে প্রতিহত করার ঘোষণা দেয় তারা। শিক্ষকদের হুমকি ও প্রতিহত করার ঘোষণার প্রতিবাদে ওই বিভাগের বেশ কয়েকজন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেন। তবে মানববন্ধন শুরু হওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যে ছাত্রলীগের ১০ থেকে ১৫ জন ছাত্রলীগ কর্মী এসে হামলা করে। এসময় ছাত্রলীগের কর্মীরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের বেধড়ক মারধর করে। গত মঙ্গলবার দুপুরে অবাঞ্ছিত ঘোষণার পর দুই শিক্ষককে চাকরিচ্যুত করার দাবিতে চবি উপাচার্যকে স্মারকলিপি দেয় ছাত্রলীগ কর্মীরা।

এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছে তারা। ওই দুই শিক্ষক নিরাপত্তাহীনতার কারণে মঙ্গলবার থেকে ক্যাম্পাসে আসছেন না। মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক রাহমান নাছির। তিনি বলেন, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ভিন্ন মতামত প্রকাশের স্বাধীনতা থাকবে।

রাজনীতি ও সংস্কৃতির ক্ষেত্রে যে কোনো মতামত প্রকাশে করতে পারবে, বঙ্গবন্ধু নিজেই বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাক্টে এই মতামতের স্বাধীনতা দিয়েছেন। এই মতামতের জন্য কোনো সংগঠন কোনো শিক্ষককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করতে পারে না।

Ads
Ads