শোকের মাসে ছাত্রলীগের কমিটি বাণিজ্য, মিষ্টি খাওয়ার ধুম!

  • ২৯-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

বাঙালি জাতির জীবনে বেদনাবিধুর শোকের মাস আগস্ট। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ থেকে শুরু করে ভ্রাতৃপ্রতীম ও সহযোগী কোনো সংগঠনের কোনো কমিটির অনুমোদন এই মাসে দেয়ার রেওয়াজ না থাকলেও এবার তা ভেঙেছে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ। এমনকি কমিটি দেয়ার পর পদ পাওয়া নেতারা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলীকে মিষ্টিমুখ করিয়েছেন এমন ছবিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসুবকে ভাইরাল হয়েছে। 

আগস্ট মাসের ২০ তারিখ জেলা কমিটিতে কয়েকজনকে পদ দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বছরের পুরোনো তারিখ বসিয়ে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে পদ বাণিজ্য হয়েছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের এক নেতা বলেন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি লিমন ঢালী ও সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী যদি গত বছর জাহিদুল আলম নাঈমকে উপ গণযোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক করতেন তবে তিনি চলতি বছরের ২০ আগস্ট কেন মিষ্টিমুখ করাতে গেলেন। এছাড়া এই সময়ের মধ্যে তাকে কোথাও এই পদবী ব্যবহার করতে দেখা যায়নি। তার মানে বিষয়টি খুবই সুস্পষ্টভাবে প্রমাণ হয় যে, কমিটি দেয়ার পরই তারা মিষ্টিমুখ করে সেলফিবাজি করেছেন। এছাড়া আজমল হোসেন, আশিকুর রহমান আশিককে জেলা কমিটির সহ সম্পাদক পদ দেয়া হয়েছে। 

শোকাবহ আগস্টের মাঝে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলীর এমন ছবি প্রকাশ পাওয়ার পর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতাও ক্ষিপ্ত হয়েছেন। কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী জানিয়েছেন, বিষয়টি তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

এদিকে, কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী কমিটি বাণিজ্যের বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, এ ধরণের কোনো অভিযোগের ভিত্তি নেই। আর আগস্ট মাসে মিষ্টি খাওয়ার ছবি প্রকাশের বিষয়ে বলেন, এগুলো আগের ছবি। এখন প্রকাশ করেছে কেউ কেউ।  

Ads
Ads