ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে চান বিএনপি নেতারা

  • ২১-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

কোরবানির ঈদের দিনে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ চেয়ে কারা কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়েছেন দলটির সিনিয়র নেতারা।

মঙ্গলবার (২১ আগস্ট) বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, গত রোববার জ্যেষ্ঠ নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে তারা ওই চিঠি কারাগারে পাঠিয়েছেন।

রিজভী বলেন, দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ যাতে ঈদের দিন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাতের সুযোগ পান, সেজন্য দলের পক্ষ থেকে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দেওয়া হয়েছে। অনুমতি পেলে নেতৃবৃন্দ চেয়ারপারসনের সঙ্গে দেখা করতে যাবেন। আমরা আশা করছি, নেতৃবৃন্দ অনুমতি পাবেন।

জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ড নিয়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে পুরনো ঢাকার পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছেন খালেদা জিয়া।

এর মধ্যে গত জুন মাসে ঈদুল ফিতরের দিনও বিএনপি মহাসচিবসহ স্থায়ী কমিটির নেতৃবৃন্দ সাক্ষাতের জন্য কারা কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দিয়েছিলেন। কিন্তু কারা কর্তৃপক্ষ ঈদের দিন খালেদা জিয়ার আত্মীয়-স্বজন ছাড়া কাউকে অনুমতি দেয়নি।

খালেদা জিয়ার মেজ বোন, ছোট ভাইসহ কয়েকজন আত্মীয় সেদিন কারাগারে গিয়ে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন।

বিএনপি নেতারা বলছেন, এবার যাদের জন্য আবেদন করা হয়েছে, তাদের মধ্যে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ স্থায়ী কমিটির কয়েকজন সদস্য রয়েছেন।

এদিকে খালেদা জিয়া কারাগার থেকে দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বলে জানান রিজভী।

রিজভী বলেন, দু'দিন আগে দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার স্বজনরা দেখা করতে কারাগারে গিয়েছিলেন। তাদের মাধ্যমে তিনি দেশবাসী, বিশ্ব মুসলিম, দলের নেতাকর্মী, সাংবাদিকসহ সর্বস্তরের মানুষকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

ইতোমধ্যে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও দেশবাসীসহ সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ঈদুল আজহা উপলক্ষে বাড়ি ফেরা মানুষ চরম দুর্ভোগে বাড়ি ফিরছেন। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের শুধু বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে কুৎসা রটনায় ব্যস্ত। ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের মতো সিনিয়র সিটিজেনকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন।

এদিকে সড়কে মরদেহের সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে। সোমবারও সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ২৮ জন। গুরুতর আহত হয়েছেন শতাধিক। সড়কের বেহাল অবস্থা ও সড়ক মন্ত্রণালয়ের অব্যবস্থপনাই দুর্ঘটনার মূল কারণ।

তিনি বলেন, সড়কে মানুষকে নিরাপদে ফিরতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন ওবায়দুল কাদের। তিনি কয়েকদিন আগে বলেছিলেন এবারের ঈদযাত্রা হবে স্বস্তিদায়ক। কিন্তু আমরা কি দেখলাম, প্রতিবারের মতো এবারের ঈদ যাত্রাও হয়েছে দুর্বিসহ বেদনাদায়ক। ঈদের আনন্দের পরিবর্তে শোকের মাতম চলছে অনেক বাড়িতে। আমি বিএনপির পক্ষ থেকে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।

রিজভী বলেন, ভোলাতে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদ বলেছেন বিএনপি ক্ষমতায় এলে নাকি প্রথমদিনই লাখ লোক হত্যা করবে। আমার বক্তব্য হচ্ছে, এই উদ্ভট তথ্য তিনি কোথায় পেলেন। গুজব রটনার অভিযোগে যদি প্রখ্যাত আলোকচিত্রী, শিল্পি ও ছাত্র-ছাত্রীদের গ্রেফতার করে রিমান্ডে নির্যাতন করা হয়। তাহলে অসত্য উদ্ভট ও সমাজের মধ্যে উসকানি ও আতঙ্ক ছড়িয়ে গুজব সৃষ্টিকারী তোফায়েল আহমদের মতো একজন সিনিয়র রাজনীতিবিদের ব্যাপারে সরকার কি কোনো পদক্ষেপ নেবে?

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ আযম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. মামুন আহমদে, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-দফতর সম্পাদক মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

/ই

Ads
Ads