দেশের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

  • ৩০-Sep-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৭৩তম যোগদান শেষে স্বদেশের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। 

প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের বহনকারী ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের বিমানটি শনিবার স্থানীয় সময় রাত ৮টা ২০ মিনিটে নিউইয়র্ক জন এফ কেনেডি ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দর থেকে রওনা দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন ও জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান বলে ইউএনবির এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

লন্ডনের স্থানীয় সময় রবিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে বিমানটি লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দরে পৌঁছার কথা রয়েছে। লন্ডনে ১০ ঘণ্টার বেশি যাত্রাবিরতির পর প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ বিমানের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে করে ঢাকার উদ্দেশে লন্ডন ছাড়বে।

সোমবার (০১ অক্টোবর) সকালে বিমানটি ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

এদিকে বার্তা সংস্থা বাসসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৭৩তম অধিবেশনে যোগ দিতে গত ২১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্যের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী। দুদিন তিনি লন্ডনে যাত্রাবিরতি নেন। ২৩ সেপ্টেম্বর তিনি নিউইয়র্কে পৌঁছান।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশন চলাকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুটি পুরস্কার গ্রহণ করেন। রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় তাঁর গতিশীল ও দূরদর্শী নেতৃত্বের জন্য আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা ইন্টার প্রেস সার্ভিস (আইপিএস) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মানজনক ‘ইন্টারন্যাশনাল অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করে। পাশাপাশি গ্লোবাল হোপ কোয়ালিশন তাঁকে ‘২০১৮ স্পেশাল রিকগনিশন ফর আউটস্ট্যান্ডিং লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’-এ ভূষিত করে।

প্রধানমন্ত্রী ২৭ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে ভাষণ দেন এবং একই দিন তিনি জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে বৈঠক করেন।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের সাইডলাইনে প্রধানমন্ত্রী একাধিক বিশ্বনেতার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আয়োজিত সংবর্ধনায় যোগ দেন এবং সে দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সঙ্গেও বৈঠক করেন।

 

/কে

Ads
Ads