ডেঙ্গু রোগী ও মৃতের সংখ্যা লুকানোর কিছু নাই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • ৮-Aug-২০১৯ ০৯:২৭ অপরাহ্ন
Ads

 

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ও মৃতের সংখ্যা হাইড (লুকানো) করার কিছু নাই। তবে সংখ্যা ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে বলার মতো কিছু নাই। এমন কোনো ফিগার বলবেন না যেন আতঙ্কিত হয়ে হাসপাতালগুলোতে রোগীর লম্বা লাইন লেগে যায়। এটা থেকে বিরত থাকুন। ব্যঙ্গ করলে চলবে না। দেখতে হবে কতটুকু সেবা দিলাম, কতগুলো হাসপাতালে ভিজিটে গেলাম।

বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) ঢাকায় দৈনিক যুগান্তর কার্যালয়ে আয়োজিত ‘ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ ও সচেতনতায় করণীয়’ শিরোনামে এক গোলটেবিল আলোচনায় যোগ দিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

গণমাধ্যমের কাছে দায়িত্বশীলতা আশা করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আপনাকে রেসপনসিবল হতে হবে। প্রত্যেককে যার যার অবস্থান থেকে রেসপনসিবিলিটি শো করতে হবে।

ডেঙ্গুতে ভয়াবহতা যখন বাড়ছে, তখন সপরিবারে মালয়েশিয়া গিয়েছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। পরে সমালোচনার মুখে সফর সংক্ষিপ্ত করে তিনি দেশে ফিরে আসেন।

সমালোচনার জবাবে জাহিদ মালেক বলেন, ‘অনেকে অনেক কথা বলেছে। কজনে পাশে দাঁড়িয়েছে, কজনে হাসপাতালে ভিজিট করছে? এ বিষয়গুলো আমাদের বোঝার বিষয় আছে।’

তবে ডেঙ্গু মোকাবেলায় পরিকল্পনার অভাবের কথা স্বীকার করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্ল্যানিংয়ের অভাব ছিল। তবে নাউ থিংস উইল বি অলরাইট। আমাদের সঠিক জায়গায় অ্যাকশনে যেতে হবে। প্রবলেম থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।’

ডেঙ্গুকে ‘মহামারি’ ঘোষণার যে দাবি উঠেছে তার প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ইট ইজ নট আ ন্যাশনাল ক্রাইসিস। এটা এপেডেমিক ফর্মে (মহামারি আকারে) কিছু হয় নাই।  এখানে আমরা কন্ট্রোল করতে পারছি এটা। আমরা যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছি, এটা ইনশাল্লাহ কন্ট্রোল হবে।’

সময়মতো সঠিক চিকিৎসা পেলে ডেঙ্গু আক্রান্ত একজন রোগীও মারা যেত না বলে মনে করছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে যত রোগী এসেছে, তারা সবাই ডিলে (দেরি) করে এসেছে। গাড়ি নিয়ে আসতে আসতে রোগীর অবস্থা খারাপ। বাড়িতে সাত আট দিন কাটাইছে, অন্য একটা জায়গায় কাটাইছে, যেখানে সঠিক ট্রিটমেন্ট দেয় নাই। একটা রোগীও মরতে পারে না, যদি সময়মতো সঠিক ট্রিটমেন্ট দেওয়া হয়।’

সরকারি হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু পরীক্ষার কিট সংকটের কথা গণমাধ্যমে এলেও স্বাস্থ্যমন্ত্রী তা নাকচ করে বলেন, ‘প্রতিদিনই এক লাখ, দুই লাখ করে কিট আমরা পাচ্ছি। কিটের কোনো অভাব নাই। আইভি ফ্লুইডের প্রডাকশন দ্বিগুণ, তিনগুণ করে আমরা প্রতিটি হাসপাতালকে কেনার জন্য পারমিশন দিয়েছি। কেউ কমপ্লেইন করতে পারবে না যে হাসপাতালে আইভি ফ্লুইড পাওয়া যায় নাই।’

ডেঙ্গু মোকাবেলায় সবগুলো মন্ত্রণালয়ের ‘সমান দায়িত্ব’ রয়েছে জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, ‘ন্যাশনাল ক্রাইসিসে আমরা সকলে ঝাঁপিয়ে পড়ব। কিন্ত দায়িত্ব যার যার কর্মক্ষেত্র ভাগ করা আছে। সে দায়িত্ব যেন আমরা আমরা সঠিকভাবে পালন করি। সমস্ত সমাজের দায়িত্ব রয়েছে, এটা আমাদের একার দায়িত্ব না।’

Ads
Ads