এবার ডেঙ্গুজ্বরে একদিনে এখন পর্যন্ত ৫ জনের মৃত্যু

  • ৬-Aug-২০১৯ ০১:৪১ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

সারাদেশে ভয়াবহ ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে একদিনে এখন পর্যন্ত ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১টা পর্যন্ত গণমাধ্যমে আশা তথ্যের ভিত্তিতে এই সংখ্যা নিশ্চিত করা গেছে।

এর মধ্যে ইতালি প্রবাসী হাফসা বেগম লিপি নামে এক প্রবাসী নিহত হন। মারা যাওয়া লিপির স্বামীর নাম আবদুস সাত্তার। তিনি সপরিবারে ইতালি থাকছেন কয়েক বছর ধরে।

জানা গেছে, তিন সপ্তাহ আগে স্বামী আর দুই সন্তান নিয়ে দেশে আসেন লিপি। দেশে ফেরার পরই তার স্বামী আবুল সাত্তার জ্বরে আক্রান্ত হন। তার অসুস্থতার মধ্যেই গত ২৮ জুলাই ডেঙ্গু আক্রান্ত হন লিপি। স্বামী অসুস্থ থাকায় তার পাশে বাসায় থাকার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। হাসপাতালে ভর্তি হননি।

শুক্রবার হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়। সোমবার রাতে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান লিপি।

কৃষক

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৬টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামে) হাসপাতালে চিকিতসাধীন অবস্থায় মারা যান আমজাদ মন্ডল (৫২) নামে এক কৃষক।

জানা যায়, ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে গত ৫ আগস্ট তিনি ভোররাত রাত ৩টায় তিনি ঢামেকে ভর্তি হন। মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৬ টায় হাসপাতালের ৬০১মেডিসিন ওয়ার্ডে তার মৃত্যু হয়।

মারা যাওয়া আমজাদের ছোট ভাই রাশেদ মণ্ডল জানান, আমজাদ গত শুক্রবার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন। তাকে মানিকগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। আজ তার মৃত্যু হয়েছে।

শিশু

ভয়াবহ এই জ্বরে আক্রান্ত হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে রিয়ানা (৩) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। রিয়ানা গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার নকাইহাট এলাকার আশরাফুল ইসলামের মেয়ে।

রিয়ানা গত ৩ আগস্ট ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা থেকে রিয়ানাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চারদিন চিকিৎসাধীন থেকে মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে সে মারা যায়।

এছাড়া 

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা ও দিনাজপুরে বৃদ্ধাসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুইজনেই মারা যান।

মৃতরা হলেন- চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের বাসিন্দা মনোয়ারা বেগম (৭৫) ও ঠাকুরগাঁও জেলার রানীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ গ্রামের নয়ন ইসলামের ছেলে রবিউল ইসলাম।

জানা যায়, ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার পর গত শনিবার (৩ আগস্ট) মনোয়ারাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি করা হয়। পরে তার অবস্থা অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোরে তিনি মারা যান।

অপরদিকে, গত ৩০ জুলাই দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গু ওয়ার্ডে ভর্তি হয় রবিউল ইসলাম (১৭)। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (৬ আগষ্ট) ভোর ৬টায় সে মারা যায়।

 

/কে 

Ads
Ads