মিন্নির জামিন শুনানি ৩০ জুলাই

  • ২৩-Jul-২০১৯ ০২:২০ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বরগুনায় আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গ্রেফতার আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন আবেদন গ্রহণ করেছেন আদালত। একইসঙ্গে জামিন বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী ৩০ জুলাই দিন ধার্য করেছেন বিচারক।  

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) জামিন আবেদনের শুনানি শেষে এ তারিখ ঠিক করে দেন জেলা দায়রা ও জজ বিচারক আসাদুজ্জামানের আদালত। 

এর আগে গত সোমবার আদালতে দেয়া মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রত্যাহার ও তার চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তির আবেদন নামঞ্জুর করেন বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সিরাজুল ইসলাম গাজী।

মিন্নির পক্ষে জামিন আবেদনকারী আইনজীবী মাহবুবুল বারী শুনানি শেষে সাংবাদিকদের এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

এদিন সকাল ১০টায় বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মিন্নির জামিন আবেদনের ফৌজদারি মিসকেস দাখিল করেন তার আইনজীবী। 

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজ গেটের সামনে প্রকাশ্যে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে গুরুত্বর আহত করেন নয়ন বন্ড ও তার সহযোগীরা। গুরুতর আহত অবস্থায় বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওইদিন বিকেলেই রিফাত শরীফ মারা যান। 

এ ঘটনায় রিফাতের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনকে আসামি করে বরগুনা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

এদিকে রিফাত হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত গ্রেফতার ১৫ আসামির সবাই আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। এর মধ্যে গত ২ জুলাই পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড।

এছাড়া এজাহারভুক্ত ১২ আসামির মধ্যে এখনও ৪ জন গ্রেফতার হয়নি। তারা হলেন- মুসা, মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, রায়হান ও রিফাত হাওলাদার। আগামী ৩১ জুলাই মামলার চার্জ গঠনের তারিখ ধার্য রয়েছে।

এর আগে গত মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল সোয়া ১০টার দিকে বরগুনা পৌরসভার মাইঠা এলাকার নিজ বাসা থেকে মিন্নিকে পুলিশ লাইনে নেয়া হয়। প্রায় ১১ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর রাত ৯টার দিকে তাকে গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।

এর পরদিন বুধবার বিকেল ৩টার দিকে বরগুনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মিন্নিকে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে শুনানি শেষে মিন্নিকে ৫ দিনের রিমান্ডে পাঠায় আদালত।

রিমান্ডে নেয়ার একদিন পরই বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন জানান, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মিন্নি তার স্বামী রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। এমনকি হত্যা পরিকল্পনার সঙ্গেও তার যোগসাজশ ছিল বলে জানান মিন্নি। 

 

/কে 

Ads
Ads