'বাংলাদেশ' কোথায়, জানেন না ট্রাম্প!

  • ২০-Jul-২০১৯ ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বিভিন্ন সময় নানা কর্মকাণ্ডের জন্য বিশ্বে আলোচিত-সমালোচিত হয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এটি তার স্বভাবসিদ্ধ আচরণ। গত বুধবারও ঠিক একই ঘটনা ঘটল।

বর্তমান বিশ্বে রোহিঙ্গা সমস্যা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বিশ্বনেতারা প্রায়ই বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন থাকেন। এমনকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও এ বিষয়ে অনেকবার কথা বলেছেন। অথচ এই রোহিঙ্গা ইস্যু জানার পরই অদ্ভূত প্রশ্ন করে বিশ্বব্যাপী নতুন করে সমালোচিত হলেন ট্রাম্প।

সম্প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে তার অফিসে দেখা করেন। এই প্রতিনিধি দলে ছিল বাংলাদেশের ক্যাম্পে আশ্রয় নেওয়া এক রোহিঙ্গা।

তিনি ট্রাম্পকে বলেন, ‘আমি বাংলাদেশের শরণার্থী ক্যাম্পের একজন রোহিঙ্গা। শরণার্থীরা যত দ্রুত সম্ভব বাড়িতে ফিরতে চায়। এ ব্যাপারে কীভাবে আমাদের সাহায্য করবেন আপনি?’

ঠিক তখনই ট্রাম্প বলে ওঠেন, বাংলাদেশটা যেন কোথায়? এ সময় তার উপদেষ্টা ট্রাম্পকে বলেন, ‘মিয়ানমারের ঠিক পাশেই যে দেশটি রয়েছে, সেটাই হল বাংলাদেশ।’

তবে ঘটনাটি এখানেই শেষ হয়নি। আইএস জঙ্গিদের হাত থেকে পালিয়ে আসা ইয়াজিদি মহিলা নাদিয়া মুরাদ। তিনিও সেই প্রতিনিধি দলে ছিলেন। ইয়াজিদি মহিলাদের সমস্যার কথাই বলছিলেন ট্রাম্পকে।

সেই সময় হঠাৎ ট্রাম্পকে বলতে শোনা যায়, ‘আপনিই তো নোবেল পেয়েছিলেন তাই না! সত্যিই অসাধারণ। কিন্তু কিসের জন্য পেয়েছিলেন বলুন তো?’ মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখে এমন কথা শুনে বেশ অস্বস্তিতে পড়েছিলেন নাদিয়া।

একটু থেমে তার নোবেল পাওয়ার ব্যাখ্যাও দেন নাদিয়া! সেই সঙ্গে ইয়াজিদি মহিলাদের সুরক্ষার জন্য আর্জিও জানান মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে।

এসব মন্তব্যের পরই ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন ট্রাম্প। প্রশ্ন উঠছে, মিয়ানমার কোথায় সেটা জানেন, অথচ তারই প্রতিবেশী দেশ সম্পর্কে জানেন না ট্রাম্প? সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ট্রাম্পের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন মন্তব্য ঘুরপাক খাচ্ছে।

Ads
Ads