মাদক ব্যবসায়ীদের যে ভয়ঙ্কর হুমকি দিলেন শামীম ওসমান!

  • ২৯-Jul-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

কোন মাদক ব্যবসায়ী, সন্ত্রাসী ও ইভটিজারকে ছাড় দেবেন না বলে কড়া হুঁশিয়ারী দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

রবিরার বিকেলে শহরের ইসদাইর এলাকায় ইসদাইর রাবেয়া হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন, ভায়া সৈনিক নাগিনা জোহ স্মৃতি পাঠাগার ও বিজ্ঞানাগারের উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ হুঁশিয়ারী দেন।

শামীম ওসমান বলেন, আমরা একটা ভালো নারায়ণগঞ্জ চাই। সেজন্য সবার সাহায্য দরকার। ইলেকশন করব কি করব না সেটা পরের ব্যাপার। তবে কোন অন্যায়কেই প্রশ্রয় দেয়া হবে না। আমি আপনাদের দোয়্টাুকু চাই। ইভটিজিংয়ের শিকার হয়ে বহু মেয়ে লেখাপড়া ছেড়ে দিয়েছে, আত্মহত্যা করেছে। কিন্তু আমি আর কাউকে ছাড় দেব না। মাদক, সন্ত্রাস ও ইভটিজারদের বিরুদ্ধে তিনি যুব সমাজকে রুখে দাঁড়ানোর আহবান জানান। পাশাপাশি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের সন্তানদেরকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে মানুষের মতো মানুষ হিসেবে গড়ে তুলুন।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক শাহ্ নিজাম এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ছিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি চন্দন শীল, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম চেঙ্গিস, জেলা আইনজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদকমহসিন মিয়া ও ইসদাইর সমাজ উন্নয়ন সংস্থার প্রধান উপদেষ্টা লুৎফর আহম্মেদ খান। অনুষ্ঠানে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণসহ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়।

শামীম ওসমান এসময় তার নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নের কথা তুলে ধরে বলেন, বিগত সময়ে সংসদ সদস্য থাকাকালীন সময়ে আমি ২ হাজার ৬শ’ কোটি টাকার উন্নয়ন করে সারা দেশে রেকর্ড সৃষ্টি করেছিলাম। এবার তার দ্বিগুন ছাড়িয়ে এখন পর্যন্ত ৭ হাজার ১শ’কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ করেছি। এছাড়া ভবিষ্যতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে ফতুল্লা স্টেডিয়ামের বিপরীত পাশে একটি ৫০০ বেডের একটি অত্যাধুনিক হাসপাতাল, একটি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ এবং একটি বিশ্ববিদ্যালয় নির্মানের পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি।

নারায়ণগঞ্জ শহরের যানজট প্রসঙ্গে শামীম ওসমান বলেন, ১৪ কোটি টাকা দিয়ে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড সংস্কার করেছিলাম। আবারো ১৮ কোটি টাকার সংস্কারের কাজ এনেছি। তবে সিটি করপোরেশন গত ছয় মাস ধরে একটি ছোট্ট ড্রেনের কাজ করছে। যার কারনে আমরা লিংক রোডের সংস্কারের কাজ করতে পারছি না। তিনি পশ তলে বলেন, একটা ড্রেনের কাজ করতে কি ছয় মাস লাগে? এর জন্য প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ যানজটের ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। তিনি বলেন, এলজিটির রাস্তার জন্য ৮৫ কোটি টাকার নতুন বরাদ্দ এনেছি। ডিএনডির উন্নয়ন কাজ এনেছি। সেনাবাহিনী দ্রুততার সাথে তাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ইনশাল্লাহ আগামী বর্ষা মৌসুমে ডিএনডি এলাকায় কোন পানি (জলাবদ্ধতা) থাকবে না।

Ads
Ads