চ্যাম্পিয়ন হতে ইংল্যান্ডের টার্গেট ২৪২

  • ১৪-Jul-২০১৯ ০৮:১৬ অপরাহ্ন
Ads

:: স্পোর্টস ডেস্ক ::

ফাইনালের মঞ্চে আজ স্বাগতিক ইংল্যান্ডের মুখোমুখি নিউজিল্যান্ড। লর্ডসে টসে জিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৪১ রান তুলে নিউজিল্যান্ড। দ্বাদশ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হতে ইংল্যান্ডের দরকার ২৪২ রান।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই হিমশিম খাচ্ছিল গাপটিল-নিকোলাস জুটি। একসময় ওকসের বলে এলবির শিকার হলেন নিকোলাস। কিন্তু রিভিও রিভিউ নিয়ে বাঁচলেন কিউই এই ওপেনার।

তবে এই জুটিকে বড় করতে পারেনি কিউইরা। দলীয় ২৯ রানে মার্টিন গাপটিলকে ফিরিয়ে ইংল্যান্ডকে ব্রেক থ্রু এনে দিয়েছেন ক্রিস ওকস। ডানহাতি পেসারের বলে এলবিডব্লিউ হয়েছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। রিভিউ নিয়েও রক্ষা হয়নি। ১৮ বলে ২ চার ও এক ছক্কায় ১৯ রান করেন গাপটিল।

গত বিশ্বকাপের সেরা পারফরমার ছিলেন মার্টিন গাপটিল। অথচ এই বিশ্বকাপে অচেনা এক গাপটিলকেই দেখল ক্রিকেট বিশ্ব। ১১ ম্যাচ খেললেও চেনা রুপে ফিরতে পারেননি বিধ্বংসী এই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। এই বিশ্বকাপে ১১ ম্যাচে তার মোট রান ১৮৬।

গাপটিলকে হারিয়ে চাপ সামলিয়ে ইংলিশদের বিপক্ষে প্রতিরোধ গড়ে তুলছিল নিউজিল্যান্ড। ৭৪ রানের জুটি এসেছে উইলিয়ামসন-নিকোলাসের ব্যাটে । দলীয় ১০৩ রানে প্লাঙ্কেটের বলে এডজ হয় উইলিয়ামসনের। যেটি তালুবন্দী করেন ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক বাটলার। কিন্তু তাতে সাড়া দেননি আম্পায়ার। রিভিওতে দেখা যায় উইলিয়ামসনের ব্যাটের কোনায় হালকা স্পর্শ করে বাটলারের কাছে পৌছে। এতে ৩০ রানেই সাজঘরে ফিরতে হলে কিউই অধিনায়ককে।

উইলিয়ামসনকে হারানোর ধাক্কা সামলানোর আগেই নিউজিল্যান্ড হারালো ওপেনার নিকোলাসকে। দারুণ খেলতে থাকা নিকোলাস বোল্ড হয়ে ফিরলেন প্লাঙ্কেটের বলে। ৭৭ বলে ৫৫ রান তুলেছেন তিনি।

৩৪তম ওভারে মার্ক উডের বলে এলবিডব্লিউ হয়েছেন রস টেইলর। ৩১ বলে ১৫ রান করেছেন তিনি। ২৫ বলে তিন বাউন্ডারিতে ১৯ রান করে ফেরেন অলরাউন্ডার জিমি নিশাম। কলিন ডি গ্রান্ডহোম (১৬) দলকে বেশিদূর নিতে পারেননি। ৪৯তম ওভারে বিদায় নেওয়ার আগে টম ল্যাথাম করেন ৪৭ রান। তার ৫৬ বলে সাজানো ইনিংসে ছিল দুটি চার, একটি ছয়। শেষ ওভারে আর্চারের বলে বোল্ড হন হেনরি (৪)। এতে দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৪২ রানে।

এবারের বিশ্বকাপে লিগ পর্বের মোট ৪৫টি ম্যাচ শেষে সেরা চার দল জায়গা করে নেয় সেমিফাইনালে। দলগুলো হলো- ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। সেখান থেকে ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে সেমিফাইনালের ম্যাচ জিতে নেয় ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড।

প্রায় দেড় মাস ও ৪৭ ম্যাচের লড়াই শেষে বিশ্বকাপ ক্রিকেট যুদ্ধের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে দ্বাদশ আসরটি। ফাইনাল শেষে আজকের দিনটা হবে একেবারেই অন্যরকম। কারণ ফাইনালের দু’দলের কেউই আগে কখনো শিরোপা জয়ের স্বাদ পায়নি। এমনকি ২৩ বছর পর বিশ্বকাপ পেতে যাচ্ছে নতুন চ্যাম্পিয়নকে। এজন্য লর্ডসের মত ফাইনালে মঞ্চে নিজেদের সেরাটা দিতে প্রস্তুতি সেড়েছে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড।

ওয়ানডে ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ৯০টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড। এর মধ্যে নিউজিল্যান্ড ৪৩টিতে, ইংল্যান্ড ৪১টিতে জয় পায়। ২টি টাই ও ৪টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।

নিউজিল্যান্ড একাদশ:

মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকোলস, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), রস টেলর, জেমস নিশাম, টম ল্যাথাম, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মিচেল স্যান্টনার, ম্যাট হেনরি, ট্রেন্ট বোল্ট, লোকি ফার্গুসন।

ইংল্যান্ড একাদশ:

জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট, এউইন মরগান (অধিনায়ক), বেন স্টোকস, জস বাটলার, ক্রিস ওকস, লিয়াম প্লাঙ্কেট, জোফরা আর্চার, আদিল রশিদ, মার্ক উড।

Ads
Ads