টানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত মুম্বাই, নিহত ১৬

  • ২-Jul-২০১৯ ১১:৪৫ পূর্বাহ্ণ
Ads

 

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ভারতের বাণিজ্যিক নগরী মুম্বাইয়ে টানা এবং প্রবল বৃষ্টির জেরে দেওয়াল ভেঙে দুটি দুর্ঘটনায় ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার রাতে মুম্বাইয়ের মালাড ইস্টে একটি আবাসনের দেওয়াল ভেঙে পড়ে। এতে ১৩ জন দেওয়াল চাপা পড়ে মারা যান। আর চার জনের অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক। দেওয়ালের নীচে তিন থেকে পাঁচ জনের চাপা পড়ে থাকার আশঙ্কা করছেন উদ্ধারকারীরা।

এর আগে মুম্বাইয়ের কাছে কল্যাণে একটি স্কুলের দেওয়াল ভেঙে পড়ে। তাতে চাপা পড়ে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে তিন বছরের একটি শিশুও রয়েছে। স্কুলের ধ্বংস্তূপের নীচে এখনও চার জন আটকে রয়েছেন বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। দেওয়াল কেটে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছেন উদ্ধারকারীরা।

গত পাঁচ দিন ধরেই মুম্বাইয়ে বৃষ্টির দাপট চলছিল। তার ওপর রবিবার থেকে ২০০ মিলিমিটার বা তারও বেশি বৃষ্টিপাত হচ্ছে প্রতিদিন। রাস্তাঘাট, রেলপথ— প্রায় সবই জলমগ্ন হয়ে কার্যত বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে নগরীর জনজীবন। আবহাওয়া দপ্তরের সতর্কতা, আগামী তিন দিন আরও ভারী বৃষ্টিপাত হবে। বেসরকারি সংস্থা স্কাইমেট ৩ এবং ৫ তারিখের মধ্যে মুম্বাইয়ে বন্যা-সতর্কতা জারি করেছে।

টানা বৃষ্টির জেরে মুম্বাই বিমানবন্দরের রানওয়ে অত্যন্ত পিছিল হয়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার অবতরণের পর একটা স্পাইসজেট বিমান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। বিমানটা জয়পুর থেকে এসেছিল। যদিও কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। যাত্রীদের নিরাপদে বাইরে আনা হয়েছে। তবে বিপদ এড়াতে মুম্বাই বিমানবন্দরের মূল রানওয়ে আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে। দ্বিতীয় একটি রানওয়ে থেকে বিমান ওঠানামা করছে। এখনও পর্যন্ত ৫৪টি বিমানের মুখ ঘুরিয়ে অন্য বিমানবন্দরে অবতরণ করানো হয়েছে। কিছু আন্তর্জাতিক বিমান বেঙ্গালুরু এবং আমদাবাদে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। মুম্বাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মূল রানওয়ে বন্ধ করে দেওয়ায় বিমান ওঠানামাতে দেরি হচ্ছে।

মুম্বাইয়ে গত দু’তিন ধরে ভারী বর্ষণ শুরু হয়েছে। তাতে ক্রমশ বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে জনজীবন। মঙ্গলবার বৃষ্টিপাতের পরিমাণ আরও বাড়তে পারে, জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। স্কুল, কলেজসহ সমস্ত সরকারি অফিস বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। এছাড়াও রেল ট্র্যাকে জল জমে যাওয়ায় ট্রেন চলাচলেও বিঘ্ন ঘটেছে।

Ads
Ads