বিশ্বকাপে ক্যাচ মিসের শীর্ষে পাকিস্তান

  • ২৫-Jun-২০১৯ ০৯:৩৭ অপরাহ্ন
Ads

:: স্পোর্টস ডেস্ক ::

ক্রিকেটে প্রচলিত একটি প্রবাদ আছে ‘ক্যাচ মিস তো ম্যাচ মিস।’ কে এই কথাটি প্রথম বলেছিলেন, সেটা জানা নেই। তবে তার সেই উক্তিটির প্রমাণ মিলে যাচ্ছে ক্রিকেটের প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই।

ক্যাচ মিস খেলারই অংশ। কিন্তু প্রতিটি দলই এই ভুলটা সবচেয়ে কম করতে চায়। কেননা এই ছোট একটা ভুলের কারণেই অনেক বড় মাশুল দিতে হয়। ম্যাচ পর্যন্ত হেরে যেতে হয়।

ব্যাটিং, বোলিং ছাড়াও একটি দলের ম্যাচ জয়ের পেছনে ওন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ফিল্ডিং। যে দল যত বেশি ভালো ফিল্ডিং করবে তারাই ম্যাচের মধ্যে সবচেয়ে কম রান দেবে। এবারের বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত এটাই হয়ে আসছে। সেই হিসেবে এই আসরে সবচেয় বাজে দল হলো পাকিস্তান।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ক্যাচ মিস করার ক্ষেত্রে সবার উপরে অবস্থান করছে সরফরাজ আহমেদের দল। ছয় ম্যাচে ওঠা ২৬টি ক্যাচের মধ্যে ১৪টি ক্যাচই হাতের মধ্যে তালুবন্দি করতে পারেনি দলটির ফিল্ডাররা। এবং তাদের ক্যাচ মিসের শতকরা হার ৩৫ ভাগ।

পাকিস্তানের ঠিক পরেই ক্যাচ মিসের শতকরা ১৯.২৩ হার নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। ৪২টি ক্যাচের মধ্যে ১০টি মিস করে থ্রি-লায়ন্সরা (পরিসংখ্যানগুলো অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড ম্যাচ শুরুর আগ পর্যন্ত)।

ক্যাচ মিসের এই তালিকায় সাত নম্বরে অবস্থান করছে বাংলাদেশ। শতকরা ১১.১১ হারে ২৪টির মধ্যে মাত্র তিনটি ধরতে পারেনি টাইগাররা। তালিকায় সবার শেষে এবং সবচেয়ে ভালো অবস্থানে আছে ভারত। পাঁচ ম্যাচে ১৩টি ক্যাচের মধ্যে মাত্র একটিই ফেলে দেয় তারা। যার ফলে তাদের ক্যাচমিসের হার সবার থেকে কম, মাত্র ৬.২৫ ভাগ।

৩১ ক্যাচের মধ্যে ৭টিতে মিস করে তালিকার তৃতীয়তে অবস্থান করছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এরপরে যথাক্রমে- ৩৩ ক্যাচের মধ্যে ৬টি মিস নিউজিল্যান্ডের, ৩৫ ক্যাচের মধ্যে ৬টি মিস অস্ট্রেলিয়া, ১৫ ক্যাচের মধ্যে ২ টি মিস শ্রীলঙ্কার, ২৪ ক্যাচের মধ্যে ৩টি মিস বাংলাদেশের, ১৮ ক্যাচের মধ্যে ২টি মিস আফগানিস্তানের, ২৭ ক্যাচের মধ্যে ৩টি মিস করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং ১৫ ক্যাচের মধ্যে একটি মিস করে সবার শেষে অবস্থান করছে ভারত।

Ads
Ads