শপথ নেয়ার পর সংসদকে নিয়ে একি বললেন বিএনপির রুমিন!

  • ৯-Jun-২০১৯ ০৩:০৫ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য (এমপি) হিসেবে শপথ নিয়েছেন বিএনপি থেকে মনোনীত ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা। 

রোববার (৯ জুন) দুপুরে সংসদে নিজের কার্যালয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাকে শপথ বাক্য পাঠ করান। এ সময় জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, হুইপ ইকবালুর রহিম, হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন ও ক্যাপ্টেন (অব.) এ বি তাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

শপথ গ্রহণ শেষে রুমিন ফারহানা রীতি অনুযায়ী, শপথ বইয়ে স্বাক্ষর করেন। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান।

প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেয়ার প্রতিক্রিয়ায় রুমিন ফারহান বলেন, ‘নিশ্চয়ই প্রথমবার সংসদ সদস্য হয়ে সংসদে আসা আমার জন্য আনন্দের। তবে আমি এমন একটি সংসদে যোগ দিতে যাচ্ছি যে সংসদটি জনগণের ভোটে নির্বাচিত না। সংসদ গঠিত হওয়ার পর থেকেই বলেছি, এটি অবৈধ সংসদ, এখনো দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলছি, এটি অবৈধ সংসদ। আমি খুব খুশি হব যদি আমার সংসদ সদস্য হওয়ার মেয়াদ এক দিনের বেশি না হয়।’ দ্রুত একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনপ্রতিনিধিত্বশীল সরকার গঠিত হোক- এমনটাই তিনি চান বলে জানান।

সম্প্রতি তার নিজ এলাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে ত্রাণের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে সংঘর্ষের খবর বেরিয়েছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে রুমিন বলেন, ‘আমি মাত্র শপথ নিলাম। আমার বরাদ্দের প্রশ্নই আসে না। তবে বিষয়টি আমি জানি না, আমি দেখব কী হয়েছে।’

রুমিন ফারহানা বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক। একাদশ সংসদে বিএনপির সংসদ সদস্যসংখ্যার আনুপাতিক হারে দলটি একটি সংরক্ষিত আসন পেয়েছে। সেই আসনে রুমিনকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি।

টেলিভিশন টকশোর পরিচিত মুখ রুমিন ফারহানা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন চেয়ে আলোচনায় আসেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসন থেকে মনোনয়ন চান। তবে সেখানে উকিল আবদুস সাত্তারকে মনোনয়ন দেয় বিএনপি এবং নির্বাচনে বিজয়ী হন তিনি। নিজ এলাকার মানুষের কাছে তেমন পরিচিতি না থাকলেও কেন্দ্রীয় রাজনীতিতে রুমিন ফারহানার পরিচিতি রয়েছে।

বিএনপির নেতাকর্মীরা মনে করেন, ভাষাসংগ্রামী অলি আহাদের মেয়ে ব্যারিস্টার রুমিন সংসদে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারবেন। তিনি দলীয় বক্তব্য জাতিকে জানাতে পারবেন।

৩০ ডিসেম্বরের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি সাতটি আসনে জয়লাভ করে। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়া বাকি সবাই শপথ নিয়ে সংসদে গেছেন। এ ক্ষেত্রে সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে নির্বাচন আইন অনুযায়ী, দলটিকে একটি আসন বণ্টন করে দিয়ে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

১৬ জুন পদটিতে ভোট হওয়ার কথা থাকলেও রুমিন ফারহানা একক প্রার্থী হওয়ায় তাকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

Ads
Ads