বৃদ্ধা মায়ের বয়স ৭০, পিটিয়ে হাত ও বুক ফাটালো ছেলে!

  • ১-Jun-২০১৯ ০৫:৫৫ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় জমি দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে ৭০ বছরের বৃদ্ধা মাকে বাঁশ দিয়ে  পিটিয়ে হাত ও বুক ফাটালো ছেল।
বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার সিন্দুরখান ইউনিয়নের গুলেরগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ওই বৃদ্ধা মাকে দিনের পর দিন মারধর করে আসছে ছেলে জহুর আলী (৪৫)। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার সকালে বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করলে বাধ্য হয়ে কাঁদতে কাঁদতে থানায় গিয়ে ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেন ছুকেরা বেগম।

ছুকেরা বেগম জানান, তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে এক মেয়ে মারা গেছে। বাবার বাড়ি থেকে পাওয়া ১৫ শতাংশ জমি রয়েছে বৃদ্ধার। এই জমি বড় ছেলে জহুর আলীকে দিয়ে দেয়ার জন্য বহুদিন ধরে মাকে চাপ দিচ্ছে। জমি না দেয়ায় বহুবার বৃদ্ধা মাকে মেরে আহত করেছে জহুর। লোকলজ্জার ভয়ে এসব কথা প্রকাশ করেননি মা। ওইদিন সকালে পুনরায় জমি লিখে দেয়ার জন্য চাপ দেয় ছেলে জহুর আলী। এতে অপারগতা প্রকাশ করলে একটি বাঁশ দিয়ে বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে ছেলে।

প্রতিবেশী ব্যবসায়ী মো. মকসুদ আলী বলেন, জমি লিখে না দেয়ায় বৃদ্ধা মাকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে ছেলে জহুর আলী। এতে বৃদ্ধা মা ছুকেরা বেগমের হাত ও বুক ফেটে যায়। আহত অবস্থায় বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাই। পরে তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়। তার হাতে ও বুকে সেলাই দিতে হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) সোহেল বলেন, এ ব্যাপারে বৃদ্ধা মায়ের একটি অভিযোগ পেয়েছি। দ্রুত অভিযুক্ত ছেলের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মকসুদ আলী আরো বলেন, বৃদ্ধা ছুকেরা বেগমকে ছেলে-মেয়েরা ভরণপোষণ দেয় না। বৃদ্ধ বয়সে মানুষের বাড়িতে কাজ করে তিনি জীবিকা নির্বাহ করেন।

Ads
Ads