আবারও আন্দোলনে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা, দাবি না মানলে রাজু ভাস্কর্যে ঈদ করার ঘোষণা

  • ২৭-মে-২০১৯ ০১:৪০ অপরাহ্ন
Ads

 

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

কেন্দ্রীয় কমিটিতে থাকা বিতর্কিত নেতাদের অব্যাহতি এবং ত্যাগীদের মূল্যায়ন করা না হলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্য পাদদেশে অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা। প্রয়োজনে ভাস্কর্যের সামনে থেকেই ঈদ করবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

সোমবার (২৭ মে) সকাল সাড়ে ১১টায় এক সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা এসব কথা বলেন।

এছাড়া বিতর্কিতদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দেওয়া কর্মসূচির বিষয়েও সংবাদ সম্মেলনে তীব্র সমালোচনা করেন নেতাকর্মীরা।

তারা এসময় দাবি আদায়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। তারা প্রধানমন্ত্রীকে শেষ আশ্রয়স্থল উল্লেখ করে, তাদের যৌক্তিক দাবি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ছাত্রলীগের সাবেক উপ-দফতর সম্পাদক শেখ নকিবুল ইসলাম সুমন বলেন, ‘দাবি না মেনে নিলে ঈদের দিন আমরা রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নেবো। দাবি আাদায় না হওয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচি চলবে।’

লিখিত বক্তব্যে সুমন আরও বলেন, ‘গত ১৯ মে রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা আমাদের ডেকে পাঠান। আমরা তাদের সঙ্গে দেখা করে ঘটনা বিষয়ে বিস্তারিত জানাই ও প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ কামনা করি। আমরা কমিটি থেকে বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে তদন্তের মাধ্যমে ত্যাগীদের মূল্যায়ন ও হামলাকারীদের বিচারের দাবি জানাই। তখন আওয়ামী লীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা আমাদের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে আমরা আন্দোলন প্রত্যাহার করি। কিন্তু আমরা দেখেছি, হামলার ঘটনায় উল্টো যারা ভুক্তভোগী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

এসময় রোকেয়া হল ছাত্রলীগের সভাপতি ও ডাকসুর কমনরুম ও ক্যাফেটেরিয়া সম্পাদক বিএম লিপি আক্তার বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে কমিটি পুনর্গঠন করতে নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত তাদের বাদ দেওয়া হয়নি। উল্টো তাদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। মুজিব আদর্শের সৈনিকদের কাছে বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।’

উল্লেখ্য, গত ১৩ মে ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। এই কমিটিত অছাত্র, বিবাহিত, চাকরিজীবী, ছাত্রদল রয়েছে বলে অভিযোগ করেন পদবঞ্চিতরা। পরে গত ১৯ মে আওয়ামী লীগ নেতারা দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে তারা আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেন। কিন্তু তাদের দাবি মেনে না নিয়ে বিতর্কিতদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর ঘোষণা দেওয়ায় রবিবার (২৬ মে) রাত থেকে আবারও আন্দোলনে বসেছেন তারা।

Ads
Ads