মানববন্ধনে হানিফের সমালোচনা করে যা বললো ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা!

  • ১৫-মে-২০১৯ ০৯:১৮ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

সদ্যঘোষিত ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিকে ‘বিতর্কিত’ আখ্যা দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনে হামলার শিকার হওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। আজ বুধবার দুপুরে ঢাবির অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এ মানববন্ধন করেছেন তারা।

এ সময় পদবঞ্চিত ও পদন্নোতি না পাওয়া নেতাকর্মীরা অবিলম্বে কমিটি বিলুপ্ত করে ‘যোগ্যদের স্থান দিয়ে’ পুণরায় কমিটি দেওয়ার দাবি জানান।

মানববন্ধনে মধুর ক্যান্টিনে পদবঞ্চিতদের ওপর পদপ্রাপ্তদের হামলার ঘটনাকে ছোট ও সাধারণ আখ্যা দেওয়ায় আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফের কড়া সমালোচনা করেছেন পদবঞ্চিত শামসুন নাহার হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নিপু ইসলাম তন্বী। তিনি বলেন, ‘আর কতটুকু লাঞ্ছিত হলে তাদের মনে হতো যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নারীদের ওপর নির্যাতন হয়েছে? প্রশ্ন ওঠে- আমরা মারা গেলে কি সত্যতা প্রমাণ হতো যে এখানে একটি বিশাল ঘটনা ঘটেছে?’

মানববন্ধনে নিপু তন্বী বলেন, ‘সত্যিকার অর্থে বলতে আজকে দুঃখ লাগছে ছাত্রলীগের নিবেদিত প্রাণ হিসেবে মধুর ক্যান্টিনের মতো জায়গায় ছাত্রলীগের কিছু ছোট ও বড় ভাই দ্বারা নির্যাতিত হই, এরপরে কোনো মা, বাবা, ভাই, বোন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ করার জন্য তাদের সন্তানকে পাঠাবে না।’

নিপু আরও বলেন, ‘ছাত্রলীগের নারী নেত্রীরা বারবার নির্যাতিত হচ্ছে। আর কত নির্যাতন হলে তাদের টনক নড়বে? আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় লোকদের কাছ থেকে আমরা কবে বিবৃতি পাব, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নারী নেত্রীদের ওপর সত্যিকার অর্থে বিশাল রকমের হামলা হয়েছে। সেটি একটি প্রশ্ন থেকে যায়।’

রোকেয়া হলের সভাপতি বি এম লিপি আক্তার বলেন, ‘যাদের কমিটিতে রাখা হয়েছে তাদের ২২ জন আগে কোনো পদে ছিল না। অথচ তাদের পদ দেওয়া হয়েছে। আমাদের ছোট পদ দেওয়া হয়েছে বা আমরা পদ না পাওয়ার জন্য আন্দোলন করছি না, বরং কমিটিতে মাদক মামলার আসামি, বিবাহিত, অছাত্র, ছাত্রদল, রাজাকারের সন্তানদের পদ দেওয়া হয়েছে তার জন্য আমরা আন্দোলন করছি।’

মানববন্ধনে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত দেড় শতাধিক নেতা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তারা নিজেদেরকে সক্রিয় বলে দাবি করেন।

Ads
Ads