সাংগঠনিক গতিশীলতা ফেরাতেই ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে: মেহেদী হাসান

  • ৭-মে-২০১৯ ০৮:২৯ অপরাহ্ন
Ads

সিনিয়র প্রতিবেদক

সম্প্রতি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের ৪ টি থানা ইউনিটের কমিটি বিলুপ্ত করার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়েছেন সংগঠনটির সভাপতি মেহেদী হাসান। ভোরের পাতার সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মেয়াদোর্ত্তীণ কমিটিগুলোকে বিলুপ্ত করা ছাড়া কোনো উপায় আমাদের সামনে ছিল না। নিজ থেকে উদ্যোগ নিয়েই প্রাণের সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে বাঁচাতেই এমন কাজটি করতে হয়েছে। এই কারণে অনেকে আমার ওপর অখুশি হতেই পারেন, কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শের সৈনিক হিসাবে আমাকে এই দায়িত্ব পালন করতেই হতো; তাই করেছি। 

গত ৩ মে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান এবং সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে লালবাগ, ওয়াবী, কদমতলি ও যাত্রাবাড়ী থানা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। 

অনেকে ঘূর্ণিঝড় ফনির সময় এই কমিটি বিলুপ্তি নিয়ে প্রশ্ন তুলেন। এ বিষয়েও চমৎকার ব্যাখা দিয়েছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান। তিনি বলেন, সময় কোনো বিষয়ই নয়। কারণ আমরাও তখন ফনি মোকাবিলায় কাজ করছিলাম। আর এক দিন বা দুইদিনের সিদ্ধান্তেই কমিটি বিলুপ্ত করার মতো চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছাইনি। দীর্ঘদিন ধরে এসব ইউনিটের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণে ছিল। যারা নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন, তারা ব্যর্থ হওয়াই কমিটিগুলো বিলুপ্ত হয়েছে। বিতর্কিত কোনো কর্মকাণ্ডে কেউ জড়ালে অবশ্যই তাকে শাস্তি পেতে হবে সাংগঠনিকভাবে। 

মেহেদী হাসান আরো বলেন, এসব বিষয়ের বাইরে গিয়ে আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ বাস্তবায়নে বিতর্কহীন একটি ছাত্রলীগ উপহার দিতে চাই। এ লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছি নিরন্তর। ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে। খুব শীঘ্রই কমিটি বিলুপ্ত হওয়া থানা ইউনিটে নতুন নেতৃত্বের নাম ঘোষণা হবে। তারপর তারা জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শের রাজনীতি করেই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে ভূমিকা রাখবে বলেও বিশ্বাস করেন ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান। 
 

Ads
Ads