রমজানে রাসূল সা. বেগবান বায়ুর চেয়েও বেশি দানশীল হয়ে উঠতেন

  • ৬-মে-২০১৯ ০৮:৪৪ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

আল্লাহর রাস্তায় দান-সদকা ও ব্যয় করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। সবসময় সামর্থ্যবানদের এ ইবাদতে উৎসাহ প্রদান করেছে ইসলাম। রমজান মাসে এ ইবাদতের তাৎপর্য ও গুরুত্ব বহুলাংশে বৃদ্ধি পায়। “রাসূল সা. সকল মানুষের চেয়ে বেশি দানশীল ছিলেন। আর রমজান মাসে যখন জিব্রাইল তাঁর সাক্ষাতে মিলিত হতেন তখন তিনি আরো দানশীল হয়ে উঠতেন…। জিব্রাইলের সাক্ষাতে তিনি বেগবান বায়ুর চেয়ে বেশি দানশীল হয়ে উঠতেন”। (সহিহ বুখারী: ৩০৪৮)

আল্লাহ বলেন, ‘সে কে, যে আল্লাহকে করযে হাসানা প্রদান করবে, অতঃপর তিনি তার জন্যে তা বহুগুণে বৃদ্ধি করবেন?’ (সূরা আল-বাকারাহ : ২৪৫) ‘যারা নিজেদের ধনসম্পদ আল্লাহর পথে ব্যয় করে, তাদের উপমা একটি শস্যবীজ, যা সাতটি শীস উৎপাদন করে, প্রত্যেক শীষে একশত শস্যদানা । আর আল্লাহ যাকে ইচ্ছা বহুগুণে বৃদ্ধি করে দেন। আর আল্লাহ দানশীল সর্বজ্ঞ।’ (সূরা আল-বাকারাহ: ২৬১)

‘দেখ, তোমরাই তো তারা, যাদেরকে আল্লাহর পথে ব্যয় করার আহ্বান জানানো হচ্ছে। অথচ তোমাদের কেউ কেউ কৃপণতা করছে। যারা কৃপণতা করছে, তারা নিজেদের প্রতিই কৃপণতা করছে। আল্লাহ অভাবমুক্ত এবং তোমরা অভাবগ্রস্ত।’ (সূরা মুহাম্মাদ: ৩৮)

Ads
Ads