জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদার অর্থদণ্ড স্থগিত

  • ৩০-Apr-২০১৯ ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাত বছরের কারাদণ্ড থেকে খালাস চেয়ে আপিল ও জামিন চেয়ে বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আপিল আবেদনের শুনানির জন্য গ্রহণ করেছেন হাইকোর্ট। সেইসঙ্গে অর্থদণ্ড এবং সম্পদ জব্দের আদেশ স্থগিত করে দুই মাসের মধ্যে ওই মামলার নথি তলব করেছেন।

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ‍ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এদিন আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। দুদকের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন খুরশীদ আলম। অপরদিকে আসামি পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা জামিন চাইলে আদালত বলেন, ‘আগে নথি আসুক তারপর দেখবো। তাছাড়া অন্য মামলায় যেহেতু খালেদা জিয়া সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে রয়েছেন, তাই এ মামলায় জামিন দিলেও তিনি তো মুক্তি পাচ্ছেন না। সেহেতু আগে নথি আসুক তারপর।’

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার সাত বছর সাজা হয়। রায়ের বিরুদ্ধে আপিল আবেদন এবং জামিনেরও আর্জি করা হয়েছিল।

২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর নিম্ন আদালতের সাত বছরের সাজার বিরুদ্ধে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদনটি জমা দেন তার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল। আবেদনটিতে মূল আপিলসহ সাতশরও বেশি পৃষ্ঠার নথিপত্র রয়েছে।

এর আগে ২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেছেন আদালত। এছাড়া ১০ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

 

/কে 

Ads
Ads