প্রধানমন্ত্রীর যৌথসভায় অস্ত্রসহ ধরা পড়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা

  • ২১-Apr-২০১৯ ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ
Ads

 

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে যৌথসভায় যোগ দিতে এসে শুক্রবার অস্ত্রসহ ধরা পড়েছেন আওয়ামী লীগের এক নেতা। তার নাম এম এ মান্নান। তিনি ঢাকা মহানগর ৪৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। তার বাড়ি যাত্রাবাড়ীর ধলপুর এলাকায়।

এ ব্যাপারে পল্টন থানার ওসি মাহমুদুল হক বলেন, তার কাছ থেকে একটি লাইসেন্স করা পিস্তল পাওয়া গেছে। অস্ত্রের বৈধ কাগজপত্র আছে তার। এরপরও প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে অস্ত্র নিয়ে ঢোকার নিষেধাজ্ঞা না মানায় তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার বিকালে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে উপদেষ্টা পরিষদ ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের যৌথসভা ছিল। ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠান চলাকালীন বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের আশপাশে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এর মধ্যেই আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা যৌথভায় যোগ দেন। এসময় আওয়ামী লীগ নেতা এম এ মান্নান অস্ত্র নিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢোকার সময় ধরা পড়েন। পরে তাকে পল্টন থানা হাজতে আটকে রাখা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এম এ মান্নান পুলিশকে জানিয়েছেন, লাইসেন্স করা অস্ত্রটি নিজের নিরাপত্তার জন্য তিনি সব সময় সঙ্গে রাখেন। তিনি একটি বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে সরাসরি বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আসেন।

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোর একাধিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কোনোভাবেই প্রধানমন্ত্রীর কোনো দলীয় সমাবেশ বা অনুষ্ঠানে নিরাপত্তাকর্মীদের বাইরে কেউই বৈধ অস্ত্র নিয়েও ঢুকতে পারবেন না। তাই নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ওই আওয়ামী লীগ নেতা কেন প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে অস্ত্র নিয়ে গিয়েছিলেন, তার কোনো অসত্ উদ্দেশ্য ছিল কিনা, আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের কেউ তাকে অস্ত্র নিয়ে ভেতরে ঢুকতে সহযোগিতা করেছিল কিনা- এমন আরো অনেক বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে এ রকম আরো কয়েকটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বেশ কয়েকজন অওয়ামী লীগ নেতা অস্ত্রসহ আটক হন। যাদের লাইসেন্স করা অস্ত্র আছে। তাদেরকে অস্ত্র বহনে নিষেধাজ্ঞা জানিয়ে দলীয়ভাবে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

 

/কে 

Ads
Ads