ছাত্রলীগ সভাপতিকে হত্যার উদ্দেশ্যে গাড়িতে গুলি

  • ৮-জানুয়ারী-২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক

গাজীপুর মহানগরের কাজী আজিম উদ্দিন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদি হাসান নাহিদের গাড়িতে গুলি চালিয়েছে দুবৃর্ত্তরা।
মঙ্গলবার রাতে গাজীপুর মহানগরীর ২৯ নং ওয়ার্ডে নাহিদের গাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

সূত্র জানায় মেহেদী হাসানের ব্যবহৃত সাদা রঙের প্রাইভেট কার মিরেরবাজার হতে জয়দেবপুর আসার পথে ভোড়ার পাকা মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছালে একদল সন্ত্রাসী গাড়িটিকে গতিরোধ করে এবং গাড়িতে থাকা নাহিদকে হত্যার উদ্দেশ্যে খুঁজতে থাকে কিন্তু গাড়িতে সে না থাকায় গাড়িতে থাকা তার ড্রাইভার এবং স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা খায়রুল আলমকে মারধর করে এবং তাদের কাছ থেকে মোবাইল টাকা পয়সা নিয়ে যায়।

এই সংবাদ শুনে  মেহেদী হাসান তার বাবার ব্যবহৃত কালো রঙের গাড়ি নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা কালো গাড়িকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করে,অবস্থা বেগতিক দেখে কোনরকমে জীবন নিয়ে পালিয়ে যায় এ ছাত্রলীগ নেতা। এই ঘটনায় সন্ত্রাসীরা একটি সাদা রংয়ের এক্স নোয়া মাইক্রোবাস ব্যবহার করে কিন্তু গাড়ির কোন নাম্বার নেই। গাড়ির নাম্বার এর জায়গায় লেখা জুবেদা মটরস।সন্ত্রাসীদের করা একটি গুলি ছাত্রলীগ নেতার বাবার কালো গাড়ির সামনের দিক দিয়ে ঢুকে গাড়ির ব্যাটারীতে আঘাত করে।
এ ঘটনার ব্যাপারে মেহেদী হাসানের সাথে কথা বললে তিনি জানান পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গাজীপুরের শীর্ষ সন্ত্রাসী মাসুদ রানা এরশাদের নির্দেশেই সন্ত্রাসী মমিন অর্পণ তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এই হামলা চালায়। এই ঘটনা যে তাদের দ্বারাই সংঘটিত এই বিষয়ে একাধিক প্রমাণ আছে বলে জানান এ ছাত্রনেতা।
ঘঠনাস্থল পরিদর্শন করেছেন গাজীপুরের পুলিশ কর্মকর্তারা এবং গুলিবিদ্ধ গাড়িটিও পরিদর্শন করেছেন গাজীপুরের প্রশাসন।