হাসান সরকারকে টেলিফোনে যা বলেছিলেন তারেক রহমান

::ভোরের পাতা ডেস্ক::

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে বিএনপির নিশ্চিত পরাজয় অনুমান করে নির্বাচন বর্জনের আদেশ দিয়েছেন তারেক রহমান। কিন্তু তারেক রহমানের কড়া আদেশ অমান্য করে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন দলীয় প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। সূত্রের খবরে জানা গেছে, হাসান উদ্দিন সরকার সিটি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী সব বিএনপির কাউন্সিলরদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা নেওয়ায় নির্বাচন বর্জন করতে অস্বীকার করেছেন। পাশাপাশি নিজের ইমেজ নষ্ট হবে ভেবে নির্বাচন বর্জন না করার সিদ্ধান্তে অটল রয়েছেন হাসান উদ্দিন সরকার।

এই বিষয়ে গাজীপুর বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা বলেন, গাজীপুর সিটি নির্বাচনে বিশাল ব্যবধানে পরাজিত হওয়ায় শঙ্কায় রয়েছে বিএনপি। তাই পরিবেশ বিবেচনা করে ২৬ জুন দুপুরে লন্ডন থেকে সরাসরি টোলিফোনে হাসান উদ্দিনের সাথে কথা বলেন লন্ডনে পলাতক বিএনপি নেতা তারেক রহমান। অচিরেই সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বর্জনের জন্য হাসান উদ্দিনকে আদেশ করেন তারেক রহমান। নির্বাজন বর্জন না করলে দল থেকে বহিষ্কার করারও হুমকি দেন তারেক। কিন্তু স্থানীয় বিএনপি কাউন্সিলর পদপ্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ায় নির্বাচন বর্জনে অস্বীকৃতি জানান হাসান উদ্দিন সরকার। শেষ সময়ে এসে নির্বাচন বর্জন করলে বিএনপির কাউন্সিলররা পিঠের চামড়া তুলে নিবেন বলে নিজের ভয়ের কথা প্রকাশ করেন হাসান।

এছাড়া গাটের কাড়ি কাড়ি পয়সা খরচ করে নির্বাচনের শেষ না দেখা পর্যন্ত ক্ষান্ত না হওয়ারও কথা জোর দিয়ে বলেন হাসান উদ্দিন। কিন্তু তারেক বারবার নির্বাচন বর্জনের কথা বললে রাগ করে টেলিফোন কেটে দেন হাসান। তারেক রহমানের কথায় ক্ষুব্ধ পরবর্তীতে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচনে অটল থাকার ঘোষণা দেন হাসান উদ্দিন সরকার।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here