সড়কে গেল ৯ প্রাণ

ভোরের পাতা ডেস্ক

দেশের চার জেলায় মঙ্গলবার (১৫ মে) সড়ক দুর্ঘটনায় নয়জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় ৩, মানিকগঞ্জে ৩, ময়মনসিংহে ২ ও বড়াইগ্রামে ১ জন মারা গেছেন।

চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গায় আলাদা সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বেলা ১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-দর্শনা সড়কে দামুড়হুদা উপজেলার জয়রাপুর মজার পুকুরের পাশে ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহী আহসান হাবিব ওরফে তপন (৪০) নিহত হন।

আহত হন তার শিশু সন্তান তৌফিক আজিজ ও তার ভাইয়ের ছেলে আতিকুর রহমান। মৃত্যু আহসান হাবিবব জয়রামপুর চৌধুরী পাড়ার মরহুম আলাউদ্দীন মিয়ার ছেলে। এদিন দুপুর দেড়টার দিকে একই উপজেলায় দর্শনায় ট্রাক ও পাওয়ার ট্রলির সংঘর্ষ হয়।

এতে পাওয়ার ট্রলির চালক রুহুল আমিন (৩০) ঘটনাস্থলেই মারা যান। রুহুল আমিন দর্শনার পাশ্ববর্তী উজলপুর গ্রামের মরহুম আনারের ছেলে। এদিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কাথুলী গ্রামে আলমসাধুর ধাক্কায় সুফিয়া বেগম (৭০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। তিনি রাস্তা অতিক্রম করতে গিয়ে আলমসাধুর সঙ্গে ধাক্কা খান। নিহতদের ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা জানান।

মানিকগঞ্জ : ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে গতকাল বেলা ৩টার দিকে মানিকগঞ্জের তরা মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মোড়ে সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে বাসে আরো ১৫ যাত্রী। নিহতদের মধ্যে একজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তিনি হলেন ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার কুশন্ডা গ্রামে মিজানুর রহমান (৫০)।

বরঙ্গাইল হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সার্জেন্ট ইয়ামিন উদ-দৌলা জানান, মঙ্গলবার বেলা তিনটার দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ফরিদপুরগামী দ্রুতগতির সাউদিয়া পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী ( ঢাকা মেট্রো ব -১১-০৫৩০) তরা মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মোড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে মহাসড়কে উল্টে পড়ে।

এ ঘটনায় ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হন। আহত হয়েছেন ১৫ জন যাত্রী। আহত যাত্রীদের মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১০ জন যাত্রী অবস্থা আশংকা জনক। এদিকে দুর্ঘটনাস্থলে বাসটি মহাসড়কে উল্টে থাকার কারণে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে উভয় পাশে যানজটের সৃষ্টি হয়। প্রায় বিকেল সাড়ে চারটার দিকে মহাসড়ক থেকে দুর্ঘটনাকবলিত বাসটি সরিয়ে নিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

মুক্তাগাছা : ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় ট্রাক ও সিএনজি চালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই যাত্রী নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরো ৪ জন। নিহতরা হচ্ছেন মুক্তাগাছা উপজেলার খাজুলিয়া গ্রামের জালাল উদ্দিন(৩৮) ও একই উপজেলার কমলাপুর গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমান লেবু(৪৫)।

পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করেছে। আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার দুপুরে ময়মনসিংহ-টাঙ্গাইল সড়কে উপজেলার গাবতলী নামক স্থানে। পুলিশ দুর্ঘটনা কবলিত অটোরিকশা উদ্ধার করে ও ট্রাকটি আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

মুক্তাগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আহমেদ মোল্লা জানান, দুপুর ১২টার দিকে ময়মনসিংহ-টাঙ্গাইল সড়কে গাবতলী কলেজ মাঠ এলাকায় টাঙ্গাইলগামী একটি ট্রাকের সঙ্গে মুক্তাগাছাগামী একটি সিএনজি-অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলেই দুই জন মারা যান। অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এসময় এক নারীসহ ৪ জন আহত হন। আহতদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার মধ্যে সিএনজি চালক মফিজ উদ্দিনের অবস্থা অশঙ্কাজনক বলে তিনি জানান।

বড়াইগ্রাম : নাটোরের বড়াইগ্রামে গত মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের মহিষভাঙ্গা এলাকায় একটি কাভার্ড ভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়।

এসময় স্থানীয়রা ড্রাইভার মানিক হোসেনকে (৩৬) গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে নিলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত মানিক জামালপুর সরিষাবাড়ি উপজেলার বাউসি মধ্যপাড়ার হাসান আলীর ছেলে।

 

অনলাইন/কে 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here