সবার উচিৎ একসাথে মরে যাওয়া-ইমরান এইচ সরকার

::ভোরের পাতা ডেস্ক::

গত শনিবার (২৬ মে) টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে পৌর কাউন্সিলর একরামুল হক নিহতের ঘটনায় তোলপাড় চলছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে। দেশের তারকা শিল্পী থেকে শুরু করে বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ নিন্দা জানিয়েছেন এ ঘটনার।

এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার। শুক্রবার ফেসবুকে নিজস্ব ভেরিফায়েড পেজে ইমরান সরকার লিখেন,

‘ঠান্ডা মাথায় গুলি করে হত্যা করা হয়েছে নিরস্ত্র একরামুল হককে। ফোনের অন্যপাশ থেকে গুলির শব্দ শুনতে হয়েছে স্ত্রী আর সন্তানদের। আমাদের বাংলাদেশ কি এইভাবে নৃশংস হত্যার জনপদ হয়ে যাবে?
এরপরে কাকে ধরে নিয়ে গুলি করে মেরে ফেলা হবে? আপনাকে নয়তো আমাকে। তারপরও চুপ করে থাকবো? আমাদের শরীরে কি মানুষের রক্ত নাই?
এইভাবে প্রতিদিন একটু একটু করে মরার কোনো অর্থ হয়না। কিছু করতে না পারলে আমাদের সবার উচিৎ একসাথে মরে যাওয়া।
রাস্তায় নামুন, চিৎকার করে বলুন-
মানুষ হত্যা বন্ধ করতে হবে।
সবাইকে বিচারের অধিকার দিতে হবে।
বিনাবিচারে আর একটা প্রাণও ঝরবে না এই বাংলাদেশে।’

একই স্ট্যাটাসে ‘বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের’ প্রতিবাদে গণজাগরণ মঞ্চের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে যোগদানের আহ্বান জানান ইমরান এইচ সরকার। রোববার বিকেলে রাজধানীর শাহবাগে এই বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here