বরিশাল সিটি নির্বাচন প্রচারণায় মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা

:: ফিরোজ মোস্তফা, বরিশাল ব্যুরো ::

বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই প্রচারণা শুরু করেছেন প্রার্থীরা। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে উৎসবমুখর পরিবেশে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে ৬ মেয়র, ৯৪ সাধারণ কাউন্সিলর ও ৪৫ জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান।

বিভিন্ন দলের ৬ মেয়র প্রার্থীর মাঝে আগে থেকে নির্ধারিত দলীয় প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়। সাধারণ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে কোনো প্রার্থী একক প্রতীক চাইলে তাদের সেই প্রতীক বরাদ্দ দেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। তবে একই ওয়ার্ডে একাধিক প্রার্থী এক প্রতীক চাইলে তাদের মধ্যে লাটারির মাধ্যমে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়। কোনো কোনো ওয়ার্ডে আবার সমঝোতার মাধ্যমে কোনো কোনো প্রার্থীকে তাদের পছন্দের প্রতীক ছেড়ে দেন প্রতিদ্বন্দ্বীরা।

বেলা ১২টায় রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছ থেকে বিএনপির প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ারের পক্ষে ধানের শীষের প্রতীক গ্রহণ করেন মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়া এবং সিনিয়র সহ সভাপতি মনিরুজ্জামান ফারুক। এরপরই আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাদিক আবদুল্লাহর পক্ষে নৌকা প্রতীক গ্রহণ করেন মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, সহ সভাপতি সাইদুর রহমান রিন্টু এবং মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রমসহ অন্যরা।

এছাড়া জাতীয় পার্টির ইকবাল হোসেন তাপস লাঙ্গল, কমিউনিস্ট পার্টির এ কে আজাদ কাস্তে, বাসদের ড. মনিষা চক্রবর্তী মই এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মওলানা ওবায়দুর রহমান মাহবুব হাত পাখা প্রতীক বরাদ্দ পান।

প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পরই রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে মিছিল নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন বাসদের ডা. মনিষা চক্রবর্তী। দুপুর ১টায় নগরীর সদর রোডের দলীয় কার্যালয় চত্বরে নেতাকর্মীদের ধানের শীষের স্লোগানের মধ্য দিয়ে প্রচারণা শুরু করেন বিএনপির প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার। যদিও তিনি দলীয় কার্যালয়ে মহান সৃষ্টিকর্তার নামে দোয়া-মুনাজাতের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরুর কথা বলেন। বিকেল সাড়ে ৪টায় নগরীর অক্সফোর্ড মিশন রোডে নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধনের মাধ্যমে প্রচারণা শুরুর কথা বলেছেন জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস।

এদিকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে একযোগে নৌকার মিছিলের মাধ্যমে সাদিক আবদুল্লাহর প্রচারণা শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন দলের মুখপাত্র গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল। প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর বিএনপি, জাতীয় পার্টি, কমিউনিস্ট পার্টি ও বাসদের মেয়র প্রার্থী সুষ্ঠু ভোট নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করলেও তাদের অভিযোগ অমূলক বলে দাবি করেছে আওয়ামী লীগ। অভিযোগ করা তাদের অভ্যাস হয়ে গেছে বলেও জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের মুখপাত্র গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল।

এদিকে সুষ্ঠু ভোটের জন্য নির্বাচন কমিশন সব ধরনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান।

 

অনলাইন/কে 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here