পরিত্যক্ত বাড়িতেই মিললো অঢেল স্বর্ণমুদ্রা!

::সীমানা পেরিয়ে ডেস্ক::

পরিত্যক্ত বাড়ি ভাঙতে গিয়ে মিললো রাশি রাশি স্বর্ণমুদ্রা! ঘটনাটি ঘটেছে ফ্রান্সের ব্রিটানি টাউনে। বাড়িটির মালিকের পরিচয় সামনে আসেনি। তবে ফরাসি আইন অনুযায়ী, ওই গুপ্তধন বাড়ির মালিক এবং আবিষ্কর্তার মধ্যে সমান ভাগ হবে।

ব্যাট’আইসল নামে একটি সংস্থা ওই বাড়িটি ভাঙার চুক্তি পেয়েছিল। সংস্থার কর্তা লরেন্ট লে বিহান এএফপিকে জানিয়েছেন পুরো ঘটনাটা। তিনি জানান, ওই বাড়িটি অনেক বছর ধরে ফাঁকাই পড়ে ছিল। বহু দিন সংস্কার না হওয়ায় তা ভগ্নপ্রায় হয়ে গিয়েছিল। সম্প্রতি বাড়িটির মালিক ওই সংস্থাটিকে তা ভাঙার বরাত দেন। সেই মতো দিন কয়েক আগে বাড়িটি ভাঙতে যায় ওই সংস্থা। ভাঙার কাজ চলার সময়ই এক কর্মী দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার একটি কামানের গোলা দেখতে পান। সেটা হাতে নিয়ে বুঝতে পারেন ভিতরে কিছু আছে। ভেঙে দেখা যায়, একটা-দুটো নয়, পুরো ৬০০টা বেলজিয়ান সোনার কয়েন রয়েছে তার মধ্যে।

প্রতিটি কয়েনের পিছনে ১৮৭০ সাল লেখা। কয়েনের অন্য পিঠে বেলজিয়ামের রাজা দ্বিতীয় লিওপোল্ডের ছবি। দ্বিতীয় লিওপোল্ড ১৮৬৫ থেকে ১৯০৯ সাল পর্যন্ত রাজত্ব করেছিলেন। এই কয়েনগুলো যে খুবই দুর্মূল্য তখনই তা নিশ্চিত হয়ে যান ওই সংস্থার কর্তা। কিন্তু এর আনুমানিক মূল্য কত হতে পারে তা তখনও জানতেন না তিনি। পরে জানা যায়, ৬০০ বেলজিয়াম গোল্ড কয়েনের সম্মিলিত মূল্য এক লক্ষ ইউরো। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৮০ লক্ষ টাকার উপরে। কয়েনগুলো আপাতত ফ্রান্স প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে আছে। পরে তা বাড়ির মালিক এবং ওই সংস্থার মধ্যে সমান ভাগ করে দেওয়া হবে।

কোথা থেকে ওই বাড়িতে এল এই কয়েনগুলো? সংবাদ সংস্থা এএফপি সূত্রে খবর, বাড়ির মালিকের ঠাকুরদা ছিলেন একজন কয়েন কালেক্টর। বিভিন্ন কয়েন তিনি নিজের সংগ্রহে রাখতেন। এই কয়েনগুলোও সেই সংগ্রহেরই নমুনা।

সূত্র: আনন্দবাজার

/এনএস

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here