পরবর্তী তৃতীয় দফার সরকার গঠন আ.লীগই করতে যাচ্ছে!

জাতীয় নির্বাচনে বিএনপিকেই প্রত্যাখ্যান করবে জনগণ: কাদের

শেখ হাসিনাই যে ক্ষমতায় আসবে তার আভাস দিচ্ছে জনগণ: হানিফ

:: ইসহাক আসিফ::

চলতি বছরেই হতে যাচ্ছে একাদশ সংসদ নির্বাচন। জনমতের যে প্রতিফলন তাতে করে নিশ্চিত করে বলা যায়, ওই নির্বাচনে জয়ী হয়ে ফের তৃতীয় দফার মতো সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। আর এখনই এমন আত্মবিশ্বাসে বলিয়ান হয়ে এই ভবিষ্যদ্বাণী করতে শুরু করেছেন দলটির কেন্দ্রীয় জ্যেষ্ঠ নেতারা।

বলছেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনে আমরাই বিজয়ী হবো। খুলনা সিটি নির্বাচনে মেয়র তালুকদার আবদুল খালেকের বিপুল ভোটের ব্যবধানে যে বিজয় এসেছে, এখানেই স্পষ্ট আভাস মিলছে, তৃতীয় দফার মতো সরকার গঠন করে এক বিরল ইতিহাস গড়তে যাচ্ছেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দলটির নীতি-নির্ধারণী মহলের ভাষ্য মতেও, একসময় এ দেশে কোনো উন্নয়ন হতো না। অগ্রগতির মুখও দেখতে পেত না দেশের জনগণ। এখন দেশের উন্নয়নে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার যে নিরলস প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে এর ওপর জোর দিয়ে আবারো আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করবে।

ক্ষমতাসীন নেতারা বলছেন, সরকারের নানা উন্নয়ন-অর্জনের কারণেই আগামী জাতীয় নির্বাচনে আবারো আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে। আর এই অর্জনের কারণেই খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বড় জয় হয়েছে।

এছাড়া বর্তমান (শেখ হাসিনার অধীনস্ত) সরকারের টানা ৯ বছর সাত মাস ক্ষমতায় দেশের নানা উন্নয়ন যেমন, যোগাযোগ ব্যবস্থা রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট, সেতু, বিদ্যুৎ সংযোগ, রেলপথ উন্নয়ন, সমুদ্র সীমা বিজয়, গ্রামীণ জণগোষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়ন, কৃষি কাজের অধুনিকায়ন, কৃষকের কষ্ট লাঘব, আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর দক্ষতা সাধনে উন্নয়ন, সরকারের সশস্ত্র বাহিনীর অধুনিকায়ন, স্বরাষ্ট্র ও ভূমির উন্নয়ন, পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা, জলাবদ্ধতা দুরীকরণ, বিশুদ্ধ খাবার পানির পর্যাপ্ত ব্যবস্থা, স্বজনপ্রীতি ও ঘুষ-দুর্নীতির কমিয়ে মেধাবী এবং সুবিধাবঞ্চিত প্রার্থীর কর্মসংস্থানের সুযোগ, তথ্য প্রযুক্তিনির্ভর দেশ গড়ার কাজে এগিয়ে চলা, ২০২১ সালের মধ্যেই ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে ‘ভিশন টুয়েন্টি টুয়েন্টি ওয়ান’ বা ‘রূপকল্প ২০২১’ ঘোষণা করা, সর্বশেষ বৈদাশিক মুদ্রা অর্জনে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করাসহ দেশের নানামুখী উন্নয়নের জন্যই আগামী জাতীয় নির্বাচনে জনগণ আবারো আওয়ামী লীগকেই ক্ষমতায় আনবে বলে আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে।

দলীয় এক সূত্রে জানা গেছে, সমুদ্র ও সীমান্ত বিজয়, পারমাণবিক ক্লাবে যোগ, স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণে ঐতিহাসিক সাফল্যের কারণগুলোর কারণেই আগামী নির্বাচনে আবারো মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দিবে।

এবিষয়ে যুক্তি দেখিয়ে দলটির একজন দ্বিতীয় শীর্ষ নেতা বলেন, সমুদ্র ও সীমান্ত বিজয় হয়েছে, পারমাণবিক ক্লাবে যোগ দেওয়া এবং স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণে ঐতিহাসিক সাফল্যের কারণেই খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মানুষ নৌকার প্রার্থীকে ভোট দিয়ে জয়ী করেছেন।

আগামী জাতীয় নির্বাচনে আবারো আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে এমন জোর দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। গতকাল বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, জনগণ মঙ্গলবার খুলনা সিটি নির্বাচনে রায় দিয়ে প্রমাণ করেছে, আওয়ামী লীগ আবারও ক্ষমতায় আসবে। মালয়েশিয়ার মতো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রেখে দেশের উন্নয়ন চায় জনগণ। তাই তারা বলছে শেখ হাসিনার সরকার বারবার দরকার। ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস’ উপলক্ষে ঢাকার গোপালগঞ্জ সাংবাদিক সমিতি আলোচনা সভার আয়োজন করে।

হানিফ বলেন, বিএনপির কাজ সকাল বিকেল মিথ্যাচার করা। খুলনা সিটির নির্বাচন নিয়েও তারা মিথ্যাচার করছে। খুলনা সিটি নির্বাচনে জনগণ বিএনপির প্রতি অনাস্থা দেখিয়ে প্রমাণ করেছে তারা দুর্নীতিবাজদের সঙ্গে নেই। এখন শুধুমাত্র সাংবাদিকদের কল্যাণে টিকে আছে বিএনপি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, খুলনা সিটি নির্বাচন বিএনপি প্রত্যাখ্যান করেছে, আগামী জাতীয় নির্বাচনে বাংলাদেশের জনগণ তাদেরকেই প্রত্যাখ্যান করবে। বুধবার রাজধানীর মিরপুরে মনিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এমন কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

এবিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী ভোরের পাতাকে বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয়লাভ করবেই।

কারণ হিসেবে তিনি দেখছেন, দেশের মুক্তি সংগ্রামের নেতৃত্বদানকারী সংগঠন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর এই জন্যই একাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয় লাভ করবেই।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশচন্দ্র সেন ভোরের পাতাকে বলেন, জনগণই ক্ষতার উৎস। জনগণ যদি ভোট দেয়, যদি চায় তাহলে অবশ্যই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে। তাছাড়া এত কাজ, এত উন্নয়ন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা করেছেন। তাছাড়া মানুষের একটা আবেগ তো আছে আমাদের (আওয়ামী লীগের) ওপর। এই আবেগটাই আমাদের জন্য একটা টনিক হিসেবে কাজ করে।

এক প্রশ্নের জবাবে সাবেক এ পানিসম্পদমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার (শেখ হাসিনা) দেশে যে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছেন এর ওপর আস্থা রেখে বলা যায়, আবারো ক্ষমতায় আসবে আওয়ামী লীগ।

ভোরের পাতা/ই

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here