ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীর মাথা থেঁতলে দিয়েছে বখাটেরা

::রংপুর প্রতিনিধি::

ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে লাঠি ও ইট দিয়ে স্নাতকোত্তর শ্রেণির এক ছাত্রীর (২৫) মাথা থেঁতলে দিয়েছে চার বখাটে। রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত ছাত্রী ও তাঁর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বগুড়ার সরকারি আজিজুল হক কলেজের ওই ছাত্রী ঈদের ছুটিতে কয়েক দিন আগে বাড়িতে আসেন। তাঁরা দুই ভাইবোন। তাঁদের মা-বাবা মারা গেছেন।

পুলিশ ও ছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাত আড়াইটার দিকে চার বখাটে যুবক দরজা ভেঙে ঘরের ভেতর ঢুকে তরুণীটির মুখ ও হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে তাঁর মুখের বাঁধন খুলে যায়। এ সময় মেয়েটির চিৎকারে তাঁর ছোট ভাই ও আশপাশের লোকজন জেগে উঠলে বখাটেরা ইট ও লাঠি দিয়ে মেয়েটির মাথা থেঁতলে দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে ওই রাতেই তাঁকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন জানিয়ে ওই ছাত্রী বলেন, এ ঘটনায় মামলা করা হবে।

পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক খাদিজা খাতুন প্রথম আলোকে বলেন, মেয়েটির মাথায় ইট ও লাঠি দিয়ে আঘাত করে থেঁতলে দেওয়া হয়েছে। তাঁর পুরো মাথায় ব্যান্ডেজ করা হয়েছে। মুখে আঁচড়ের দাগও আছে। তবে তিনি আশঙ্কামুক্ত।

পীরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাসুম রহমান বলেন, ‘বিষয়টি জানার পর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মেয়েটিকে দেখতে গিয়েছি। থানায় অভিযোগ দেওয়া হলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here