তারেকের টাকা বুজিয়ে না দিলে লণ্ডন ছাড়তে পারছেন না ফখরুল

::ভোরের পাতা ডেস্ক::

সরকারের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে ক্রসফায়ারের হাত থেকে বাঁচতে লন্ডনে পলাতক তারেক রহমানের কাছে আশ্রয় ও বিদেশি পালানোর ব্যবস্থা করার জন্য টেকনাফ বিএনপি নেতারা দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুলের মাধ্যমে ৫ কোটি টাকা পাঠিয়েছেন বলে সূত্রের খবরে জানা গেছে। সেই টাকা জায়গামত না পৌছিয়ে ব্যাংককে মৌজ-মাস্তি করার জন্য মির্জা ফখরুলকে একহাত নিয়েছেন তারেক রহমান। তারেক রহমানের টাকায় ভাগ বসানোর জন্য মির্জা ফখরুলকে গুনতে হচ্ছে জরিমানা। জানা গেছে, তারেক রহমানের নিজস্ব গুণ্ডা বাহিনীর হাতে নজরবিন্দও হতে পারেন মির্জা ফখরুল।

বিএনপির একটি সূত্রে জানা গেছে, দেশে সরকার যেভাবে মাদক ব্যবসায়ীদের ক্রসফায়ার দিচ্ছে তাতে জীবন নিয়ে আতঙ্কে আছেন টেকনাফ বিএনপির নেতা-কর্মীরা। টেকনাফ বিএনপির সভাপতি জাফর আলম, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, টেকনাফ পৌর বিএনপির সভাপতি রাজ্জাক মেম্বার, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল আমিন আবুলসহ একাধিক স্থানীয় বিএনপি নেতারা জীবন বাঁচানো এবং লন্ডন অথবা মালয়েশিয়ায় আশ্রয় নিয়ে দেওয়ার জন্য মির্জা ফখরুলের মাধ্যমে তারেক রহমানের সাথে যোগাযোগ করেন।

দাবি অনুযায়ী মির্জা ফখরুলের হাতে ৫ কোটি টাকা দেন নেতারা। টাকা শুধুমাত্র তারেক রহমানের হাতে দেওয়ার জন্য বারবার অনুরোধ করেন টেকনাফ বিএনপি নেতারা। অবিশ্বাস করার জন্য নেতা-কর্মীদের উপর চড়াও হন মির্জা ফখরুল। এরপর দলীয় হুন্ডি চ্যানেলের মাধ্যমে প্রথমে ব্যাংককে টাকা নিয়ে যান মির্জা ফখরুল। সেখানে মিটিংয়ের নামে তিন-চারজন সিনিয়র নেতারা দামি হোটেলে রাত কাটান, উদরপূর্তি করে প্রায় কোটি খরচ ফেলেন। এরপর বাকি টাকা নিয়ে ৯ জুন সকালে লন্ডনে যান মির্জা ফখরুল। লন্ডনে নেমেই টেকনাফ বিএনপি নেতাদের পাঠানো টাকার বিষয়ে খোঁজ নেন তারেক রহমান। তখন মির্জা ফখরুল আমতা আমতা করতে থাকেন এবং ব্যাংককে কিছু টাকা খরচের বিষয়ে জানানো মাত্রই তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন তারেক রহমান। মির্জা ফখরুলকে মারার জন্য তেড়ে আসেন তারেক রহমান। গালিগালাজ করেন অকথ্য ভাষায়। বাঘের খাদ্যে শিয়ালের ভাগ বসানোয় চরম অপমানিত হয়েছেন তারেক রহমান। চোরের উপর বাটপারির জন্য মির্জা ফখরুলের পদ কেড়ে নিয়ে সাধারণ সদস্য করে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন তারেক রহমান।

সূত্রের খবরে জানা গেছে, তারেক রহমানের টাকায় ভাগ বসানোর জন্য লন্ডনে থাকা-খাওয়া ও হোটেল ভাড়ার টাকা নিজ পকেট থেকে দিতে হবে মির্জা ফখরুলকে। পাশাপাশি দেশ থেকে এক কোটি টাকা তারেক রহমানের একাউন্টে জমা দিলেই লন্ডন ছাড়ার অনুমতি পাবেন মির্জা ফখরুল। টাকা না দিতে পারলে লন্ডনে তাকে সাইজ করার হুমকি দিয়েছেন তারেক রহমান।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here