টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে প্রথমবারের মতো ৮ নম্বরে বাংলাদেশ

:: খেলার মাঠে ডেস্ক ::

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার (আইসিসি) টেস্টে র‍্যাংকিংয়ে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ অষ্টম স্থানে উঠেছে। মঙ্গলবার (০১ মে) ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রন সংস্থা তাদের নতুন টেস্ট র‌্যাংকিং প্রকাশ করে। সেই তালিকায় প্রথমবারের মত টেস্টে নবম অবস্থান থেকে অষ্টম অবস্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। আর অষ্টম স্থানে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ একধাপ নিচে নেমে গিয়েছে নবম স্থানে।

আইসিসির প্রকাশিত টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট ৭৫। ওয়েস্ট ইন্ডিজ বাংলাদেশ থেকে পিছিয়ে রয়েছে ৮ পয়েন্ট। তাদের পয়েন্ট ৬৭।

আইসিসির বার্ষিক র‌্যাংকিং ২০১৭-১৮ মৌসুমে খেলা টেস্টগুলোর ভিত্তিতে রেটিং পয়েন্ট নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে, শুধুমাত্র ২০১৭-১৮ মৌসুমই নয়, বার্ষিক র‌্যাংকিং আপডেট করার সময় আগের দুই মৌসুমের ৫০ ভাগ করে পয়েন্ট যোগ করা হয়। সে হিসেবে আইসিসি র‌্যাংকিং আপডেটে ২০১৪-১৫ সালের পয়েন্ট পূর্ণাঙ্গ বাদ দেয়া হয়েছে। এবং নতুন আপডেটে ২০১৫-১৬ এবং ২০১৬-১৭ মৌসুমের রেটিং পয়েন্টের ৫০ ভাগ করে যোগ করা হয়েছে।

আইসিসি র‌্যাংকিংয়ের বার্ষিক আপডেটের সর্বশেষ সময় ছিল ৩ এপ্রিল পর্যন্ত। এ সময় পর্যন্ত ফলাফললের ভিত্তিতেই তৈরি করা হয়েছে নতুন র‌্যাংকিং। যেখানে দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট বেড়েছে ৪টি। অন্যদিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রেটিং পয়েন্ট কমেছে ৫। জিম্বাবুয়ের ১ পয়েন্ট বাড়লেও তাদের মোট পয়েন্ট ২। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে তাদের ব্যবধান ৬৫। সুতরাং, তারা রয়েছে ১০ নম্বরে।

টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের নতুন আপডেটেও ভারত রয়েছে শীর্ষে। তাদের পয়েন্ট বেড়েছে ৪টি। ১২৫ পয়েন্ট এখন বিরাট কোহলিদের নামের পাশে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে ১৩ পয়েন্ট এগিয়ে ভারতীয়রা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকার পয়েন্ট ১১২। তাদের রেটিং পয়েন্ট কমেছে ৫। তবুও তারা দ্বিতীয় স্থানে। তৃতীয় স্থানে থাকা অস্ট্রেলিয়ার রেটিং পয়েন্ট বেড়েছে ৪টি। মোট পয়েন্ট ১০৬।

নিউজিল্যান্ডের পয়েণ্ট বাড়েওনি, কমেওনি। তাদের পয়েণ্ট ১০২। ইংল্যান্ডের পয়েন্ট বেড়েছে ১টি। তাদের মোট পয়েন্ট ৯৮। ৬ষ্ঠ স্থানে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। ১ পয়েন্ট কমেছে তাদের। মোট পয়েন্ট ৯৪। সপ্তম স্থানে রয়েছে পাকিস্তান। তাদেরও পয়েণ্ট কমেছে ২টি। মোট পয়েণ্ট ৮৬।

ভারত আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে শীর্ষে থাকার কারণে ১০ লাখ ডলার পুরস্কার পাচ্ছে । সঙ্গে দ্বিতীয় স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা পাচ্ছে ৫ লাখ ডলার পুরস্কার। তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে থাকা অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড পাচ্ছে ২ লাখ ডলার করে অর্থ পুরস্কার। তবে বাকিরা কত পাচ্ছে, সে হিসাব অবশ্য জানায়নি আইসিসি।

 

ভোরের পাতা/ই

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here