ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার দেখাতে বনানী থানার লুকোচুরি!

::নিজস্ব প্রতিবেদক::

ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি (আইএইটি) কলেজ শাখার ছাত্রলীগের সিনিয়র সভাপতি আলমাছ উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা নিয়ে লুকোচুরি করছে বনানী থানা পুলিশ।

একই প্রতিষ্ঠানের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিফাত হোসেনকে মারধর করার অভিযোগে গত ৩ জুলাই বানানী থানায় আলমাছ  উদ্দিনকে প্রধান আসামি করে মোট ৪ জনকে আসামি করে মামলা করেন রিফাত।  মামলা নং-০২। এরপর শুক্রবার সন্ধ্যায় মহাখালীর আইএইচটি ক্যাম্পাস থেকে মামলার বনানী থানার এস আই এহসান হাবিব প্রধান আসামি আছলাম উদ্দিনকে থানায় নিয়ে যায়।

তবে, ভোরের পাতার সঙ্গে আলাপকালে এস আই এহসান হাবিব বলেন, আমি আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায়  এনেছি। তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে কিনা সে বিষয়ে জানতে চাইলে পরে কথা বলছি বলে ফোন কেটে দেন।

এরপর বিষয়টি নিয়ে বনানী মডেল থানার ওসি ফরমান আলী ভোরের পাতাকে বলেন, আসামিকে থানায় নিয়ে আসা মানেই গ্রেপ্তার। এস আই কি বললো না বললো তাতে কিছু যায় আসে না। আমি বিষয়টি দেখছি বলেও জানান বনানী মডেল থানার ওসি।

উল্লেখ্য, গত ২৭ জনু রাতে আইএইচটি ক্যাম্পাসে অভিযুক্ত আসামি আছলাম উদ্দিনের নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠানটির ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিফাত হোসেনকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে। মামলার অন্য আসামিরা হচ্ছে মো. আসলাম, ফারুক এবং ইমরান।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here