গুরুতর আহত তরিকুলের শারীরিক অবস্থার অবনতি

:: ভোরের পাতা অনলাইন ::

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনে অংশ নেয়ায় ছাত্রলীগের হামলায় গুরুতর আহত তরিকুল ইসলামের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। তারিকের মেরুদণ্ডের হাড়ও ভেঙে গেছে।

শনিবার (০৭ জুলাই) তরিকুলের চিকিৎসার তত্ত্বাবধানে থাকা ড. সাইদ আহমেদ বাবু বিষয়টি জানিয়েছেন।

বাবু বলেন, শুক্রবার (৬ জুলাই) তরিকুলের পিঠের এক্স-রে করানো হয়েছে। ভারী কোনো কিছুর আঘাতে কোমরের ঠিক ওপরের মেরুদণ্ডের হাড় ভেঙে গেছে। এজন্য তার অস্ত্রোপচার করাও লাগতে পারে। তবে রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। এটার জন্য তাকে দীর্ঘ সময় চিকিৎসা নিতে হবে।

তারিকুলের শয্যাপাশে অবস্থান করা তার বন্ধু মতিউর রহমান জানান, সকাল থেকে তরিকুল কিছুটা ভালো ছিল। তবে দুপুরের খাবার খাওয়ানোর পর বমি করছে। তাছাড়া এই মুহূর্তে এখানে ডাক্তার উপস্থিত না থাকায় কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না। তবে তার পায়ের আবারও অস্ত্রোপচার করতে হবে।

তারিকুলের বোন ফাতেমা খাতুন বলেন, গতকাল একবার ডাক্তার এসে ৭টি পরীক্ষা করাতে বলেছিলেন। আমরা করিয়েছি। রিপোর্টগুলো হাতে আছে। বিকেলে ডাক্তার আসার কথা রয়েছে। তাই এখন কিছু বলতে পারছি না।

এদিকে তরিকুলের শারীরিক অবস্থার অবনতিতে ভেঙে পড়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা। ফাতেমা খাতুন বলেন, অবস্থা ভালো না, তাই মা-বাবাকে এখানে আসতে দেয়নি। এমনিতেই তারা ভেঙে পড়েছেন।

গত সোমবার কোটা সংস্কার আন্দোলনের কর্মসূচিতে পতাকা মিছিলে অংশ নিলে ছাত্রলীগের ধাওয়ায় রাস্তায় পড়ে যান তরিকুল ইসলাম। এ সময় রড, রামদা, বাঁশের লাঠি ও হাতুড়ি দিয়ে তাকে বেধরক পেটায় ছাত্রলীগ নেতারা। এতে তার মাথা ফেটে যায় ও পা ভেঙে যায়।

 

অনলাইন/কে 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here