এবার বাজেটে যেসব পণ্যের দাম বাড়ছে

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেটে দাম বাড়ছে সিগারেট, লিপিস্টক, নেইলপালিশসহ বেশ কিছু পণ্যের।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত বাজেটের (২০১৮-১৯ অর্থবছর) অর্থবিলে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ প্রস্তাব করেছেন।

বাজেটে যেসব পণ্যে মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে ১০ শলাকার সিগারেট, বিড়ি, জর্দা, এনার্জি ড্রিংক। নেইলপালিশ, লিপস্টিক, বড়ি লোশন জাতীয় প্রসাধন সাম্রগীরও মূল্য বৃদ্ধি হচ্ছে। এছাড়াও মূল্য বৃদ্ধির তালিকায় রয়েছে রয়েছে বাথটাব, পলিথিন, প্লাস্টিক ব্যাগ, বিদেশি চকলেট, কফি, গ্রিন টি, আমদানি করা বাদাম প্রভৃতি।

সোশ্যাল মিডিয়া ও অনলাইন কেনাকাটায় ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে।

এর আগে মন্ত্রিপরিষদ ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে অনুমোদন দেয়। বাজেট ঘোষণার আগে সকালে জাতীয় সংসদ ভবনে বিশেষ বৈঠকে মন্ত্রিসভা বাজেটে এই অনুমোদন দেয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ জাতীয় সংসদ ভবনে মন্ত্রিসভার এ বিশেষ বৈঠক হয়।

‘সমৃদ্ধ আগামী পথযাত্রায় বাংলাদেশ’ নাম দিয়ে প্রস্তাবিত মূল বাজেট ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট ৩ লাখ ৭১ হাজার ৪৯৫ কোটি টাকা। অর্থাৎ আগামী বাজেটের আকার সংশোধিত বাজেট থেকে প্রায় ৯৩ হাজার কোটি টাকা বেশি।

বাজেটে ব্যয় মেটাতে সরকারি অনুদানসহ আয়ের পরিমাণ ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) আয় ধরা হয়েছে ২ লাখ ৯৬ হাজার ২০১ কোটি টাকা। মোট ঘাটতি ১ লাখ ২১ হাজার ২৪২ কোটি টাকা। বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে বরাদ্দ ধরা হয়েছে (এডিপি) ১ লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরে যা ধরা হয় ১ লাখ ৫৩ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা। সরকারের অর্থায়নে অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থা থেকে ঋণ ধরা হয়েছে ৭১ হাজার ২২৬ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরে যা আছে ৬০ হাজার ৩৫২ কোটি টাকা।

উন্নয়ন বাজেটের মোট আকার ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭৯ হাজার ৬৬৯ কোটি টাকা। প্রস্তাবিত অনুন্নয়ন বাজেটে ব্যয় ধরা হয়েছে ২ লাখ ৮২ হাজার ৪১৫ কোটি টাকা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here